DMCA.com Protection Status
ADS

শনিবার দেশের পোশাক কারখানায় ধর্মঘট!

image_93554শনিবার দেশের সব পোশাক কারখানায় ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে তোবা গ্রুপ শ্রমিক সংগ্রাম কমিটি।



তোবা গ্রুপসহ সব পোশাকশ্রমিক-কর্মচারীর বকেয়া পরিশোধ, তোবার মালিক দোলোয়ার হোসেনের জামিন বাতিল করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি, শ্রমিকদের ছাঁটাই-নির্যাতন, হামলা-মামলা, দমননীতি বন্ধের দাবি, আন্দোলনরত নেতাদের গ্রেপ্তার এবং শ্রমিকদের ওপর হামলার প্রতিবাদে এ ধর্মঘটের ডাক দেওয়া হয়।



শুক্রবার তোবা গ্রুপ শ্রমিক সংগ্রাম কমিটির পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে একথা জানানো হয়।



বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ধর্মঘট সফল করতে আজ বিকেলে নারায়ণগঞ্জের কাঁচপুর, সিদ্ধিরগঞ্জ, চট্টগ্রাম, আশুলিয়া, সাভার, টঙ্গী, জয়দেবপুর, কোনাবাড়ী, মাওনা, মিরপুর, তেজগাঁওয়ে পথসভা ও মিছিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। মিছিল, পথসভায় পুলিশ লাঠিপেটা করে ব্যানার কেড়ে নিয়েছে এবং এতে অনেক পোশাকশ্রমিক আহত হয়েছেন বলে বিজ্ঞপ্তিতে দাবি করা হয়েছে।





মিছিল সমাবেশে আগামীকালের ধর্মঘট সফল করার জন্য দেশের পোশাক কারখানার শ্রমিকসহ দেশপ্রেমিক, বিবেকবান সব মানুষকে আহ্বান জানানো হয়েছে।





উল্লেখ্য, তিন মাসের বকেয়া বেতন-ভাতা, ঈদ বোনাস ও ওভারটাইম একসঙ্গে দেওয়ার দাবিতে ঈদের আগের দিন থেকে রাজধানীর বাড্ডায় হোসেন মার্কেটে অবস্থিত তোবার পোশাক কারখানায় অনশন করছিলেন পোশাকশ্রমিকেরা। গতকাল বৃহস্পতিবার অনশনের ১১তম দিনে তাদের ওপর চড়াও হয় পুলিশ। লাঠিপেটা ও পিপার স্প্রে (একধরনের ঝাঁজালো পদার্থ) করে শ্রমিকদের ভবন থেকে বের করে দেয়। এ সময় রাস্তায় পুলিশের সঙ্গে শ্রমিকদের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।



এর প্রতিবাদে অনশনরত শ্রমিকদের পক্ষে গতকাল দুপুরে শিল্পাঞ্চলসহ দেশের সব পোশাক কারখানায় গতকাল থেকেই অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট কর্মসূচি ঘোষণা করেন গার্মেন্টস শ্রমিক ঐক্য ফোরামের সভানেত্রী ও তোবা গ্রুপ শ্রমিক সংগ্রাম কমিটির সমন্বয়ক মোশরেফা মিশু। এর পরই তাকে ও শ্রমিকনেত্রী জলি তালুকদারসহ তিনজনকে আটক করে বাড্ডা থানার পুলিশ। পরে মিশুকে ছেড়ে দেওয়া হয়।



এর মধ্যে তৈরি পোশাকমালিকদের সংগঠন বিজিএমইএর আয়োজনে দুই মাসের বেতন নিয়েছেন তোবার এক হাজার ৪৭৫ জন শ্রমিক-কর্মচারী।

Share this post

scroll to top
error: Content is protected !!