DMCA.com Protection Status
ADS

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের সভাপতি-সম্পাদকসহ আটক ১৯, প্রতিবাদে ধর্মঘট

 image_109425_0রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাবি) শাখা ছাত্রদলের সভাপতি-সাধারণ সম্পাদক ও ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতিসহ ১৯ নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ।



রোবাবার রাত নয়টার দিকে বিশ্ববিদ্যালয় সংলগ্ন মির্জাপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয় থেকে তাদের করা হয়। আটককৃতদের নগরীর মতিহার থানায় রাখা হয়েছে। এদিকে আটক নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবিতে ক্যাম্পাসে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট ডেকেছে ছাত্রদল।

 

আটককৃদের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদলের সভাপতি ইমতিয়াজ আহমেদ, সাধারণ সম্পাদক কামরুল হাসান, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক সুলতান আহমেদ রাহী ও ৩০ নম্বর ওয়ার্ড বিএনপি সভাপতি নাজমুল হক, ছাত্রদল কর্মী জাকারিয়া আহমেদ জনিও আছেন।



পুলিশ ও ছাত্রদল সূত্রে জানা যায়, আগামী ১৪ ডিসেম্বর শহীদ বুদ্ধিজীবী দিবস ও ১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস উদযাপন উপলক্ষ্যে বিকাল ৫টার দিকে মির্জাপুর স্কুলের ভেতরে ছাত্রদলের নেতা-কর্মীরা প্রস্তুতিমূলক বৈঠক শুরু করেন। পরে রাত ৯টার সময় রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের কর্মী বনি, রাসেলসহ বেশ কয়েকজন তাদেরকে ঘিরে ফেলে। খবর পেয়ে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের আরও কয়েকজন নেতাকর্মী ও স্থানীয় আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরাও তাদের সঙ্গে যোগ দেয়। এ সময় ছাত্রদলের কয়েকজন নেতাকর্মীকে চড়-থাপ্পড় ও মারেন ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। পরে খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ছাত্রদলের ১৮ জন নেতাকর্মী ও এক বিএনপি নেতাকে আটক করে থানায় নিয়ে যায়।

 

এ প্রসঙ্গে নগরীর মতিহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আলমগীর হোসেন বলেন, “ছাত্রদলের নেতাকর্মীরা ‘গোপন বৈঠকে’ বসে নাশকতার পরিকল্পনা করছিলেন। এলাকাবাসী টের পেয়ে তাদের ঘিরে রাখে। পরে খবর পেয়ে পুলিশ সেখানে গিয়ে তাদেরকে এলাকাবাসীর হাত থেকে উদ্ধার করে আটক করে নিয়ে আসে।”



অপরদিকে রাবি ছাত্রদলের সভাপতি ইমতিয়াজ আহমেদ বলেন, “আমরা ওই স্কুলে একটি সাংগঠনিক বৈঠক করছিলাম। সেখানে ছাত্রলীগ ও আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা আমাদের ঘিরে ফেলে। পরে পুলিশ সেখানে এসে আমাদের ‘মুচলেকা’ দিয়ে ছেড়ে দেয়ার আশ্বাস দিয়ে থানায় এনে আটকে রেখেছে।”



এদিকে আটক নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবিতে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে (রাবি) সোমবার থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রদল। রোববার রাত ১২টার দিকে রাবি ছাত্রদলের সহ-সভাপতি আসাদুজ্জামান অলিন এ ধর্মঘটের ডাক দেন।

 

আসাদুজ্জামান অলিন বলেন, “পুলিশ আইন বহির্ভূতভাবে বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকসহ ১৯ নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। আটক নেতাকর্মীদের মুক্তির দাবিতে সোমবার থেকে ক্লাশ-পরীক্ষা বন্ধ রেখে রাবিতে অনির্দষ্টকালের ধর্মঘট পালন করবে ছাত্রদল। সোমবারের মধ্যে আটক নেতাকর্মীদের পুলিশ ছেড়ে না দিলে মঙ্গলবারও ধর্মঘট অব্যাহত থাকবে।”



এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন, বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রদলের সাংগঠনিক সম্পাদক রাজু আহমেদ মামুন, আইন অনুষদের আহ্বায়ক এহসান, কৃষি অনুষদের আহ্বায়ক সাফি প্রমুখ।

Share this post

scroll to top
error: Content is protected !!