DMCA.com Protection Status
ADS

সরকার বিরোধী আন্দোলন দমাতে পুলিশে মনোবল সংকটঃ আসছে পুলিশের ১৮০ পদোন্নতি

 Police2পুলিশের ঊর্ধ্বতন পর্যায়ে বড় ধরনের পরিবর্তন আসছে। শিগগিরই পদোন্নতি পাচ্ছেন ১৮০ পুলিশ কর্মকর্তা। অতিরিক্ত ডিআইজি, পুলিশ সুপার (এসপি) ও অতিরিক্ত পুলিশ সুপার পদে এ পদোন্নতি হচ্ছে বলে নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে।

গত বছরের ২৩ অক্টোবর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত বিভাগীয় পদোন্নতি কমিটি (ডিপিসি) এ তিনটি পদে ১৮০ জনকে পদোন্নতি দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়। সেখানে সিনিয়রদের ডিঙ্গিয়ে জুনিয়রদের পদোন্নতি দেয়ার সিদ্ধান্তের কথা শুনে পুলিশে ব্যাপক প্রতিক্রিয়া হয়। পরবর্তীতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে প্রধানমন্ত্রীর কাছে সারসংক্ষেপ পাঠানোর পর সেটি কয়েকটি ‘অবজারভেশন’ দিয়ে ফেরত পাঠানো হয়। গত সোমবার রাতে ডিপিসির বৈঠকে আগের সিদ্ধান্ত হওয়া কয়েকজন জুনিয়র কর্মকর্তার নাম বাদ দিয়ে সিনিয়র কয়েকজনের নাম যোগ করে পদোন্নতির সিদ্ধান্ত চূড়ান্ত হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর অনুমোদন নিয়ে আজ বৃহস্পতিবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় পদোন্নতি সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করতে পারে।

সূত্র জানায়, ২০টি অতিরিক্ত ডিআইজি, ৪৩টি এসপি ও ১১১টি অতিরিক্ত এসপি পদে পদোন্নতি দেয়ার জন্য কয়েক মাস আগে পুলিশ সদর দপ্তর থেকে নামের তালিকা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়। এর মধ্যে পুলিশ সুপার পদে পদোন্নতির জন্য ১৭, ১৮, ২০, ২১, ২২ ও ২৪তম ব্যাচের ৩২৫ জনের তালিকা পাঠানো হয়। কিন্তু ২৪তম ব্যাচের ১০ বছর পূর্ণ হওয়ার আগেই পুলিশ সুপার পদে পদোন্নতির জন্য নামের তালিকাও তাতে ছিল। এতে বিভিন্ন ব্যাচের সিনিয়র কর্মকর্তাদের মধ্যে ক্ষোভ দেখা দেয়।

গত বছরের ২৩ অক্টোবর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে ডিপিসির বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। তাতে জুনিয়র কর্মকর্তাসহ ২১ অতিরিক্ত ডিআইজি, ৪৫ এসপি, অতিরিক্ত এসপি ১১৪ জনকে পদোন্নতি দেয়ার সিদ্ধান্ত হয়। দু’তিন দিন পরই সিদ্ধান্তের সারসংক্ষেপ পাঠানো হয় প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে। নভেম্বর মাসের মাঝামাঝি প্রধানমন্ত্রীর কার্যলয় থেকে কয়েকটি অবজারভেশন দিয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে সারসংক্ষেপ ফেরত পাঠানো হয়। তার প্রেক্ষিতে গত সোমবার রাতে ডিপিসির বৈঠকে জুনিয়র কয়েকজনকে বাদ দিয়ে সেখানে সিনিয়রদের নাম যোগ করে পদোন্নতির সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

সূত্র আরো জানায়, বাদ পড়া জুনিয়র কর্মকর্তাদের মধ্যে কয়েকজন পুলিশ বাহিনীতে প্রভাবশালী কর্মকর্তা হিসেবে পরিচিত।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সূত্র জানায়, পদোন্নতির ক্ষেত্রে এসপি পদে আরো কয়েকজনের নাম যুক্ত হতে পারে। সব মিলিয়ে ৫০ জনের মতো এসপি পদে পদোন্নতি পেতে পারেন।

২০০১ সালে ২০তম বিসিএস-এ পাস করে এএসপি পদে যোগ দিয়েছিলেন ১১৪ জন। তাদের মধ্যে মারা গেছেন একজন, একজন চাকরি ছেড়েছেন, দু’জন অন্য ক্যাডারে চলে গেছেন। বর্তমানে ১১০ জন কর্মরত রয়েছেন। তাদের মধ্যে ৩৫ জন ছাড়া বাকিরা এসপি পদে পদোন্নতি পেয়েছেন বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

এছাড়া ২০০৩ সালের ২১তম বিসিএস-এ এএসপি পদে ৫৩ জন নিয়োগ পান। সেখান থেকে একজনের চাকরি চলে গেছে। দুইজন এসপি পদে পদোন্নতি পেয়েছেন। বাকি ৪৯ জন পদোন্নতির তালিকায় ছিলেন বলে জানা গেছে।

২০০৩ সালের ২২তম বিসিএস-এ পুলিশ বাহিনীতে যোগ দিয়েছিলেন ৪৫ জন। তাদের একজন মারা গেছেন। বাকি ৪৪ জনের তালিকাও যায় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে। এছাড়া ২০০৫ সালে ২৪তম বিসিএস-এ পাস করে এএসপি হিসেবে পুলিশ বাহিনীতে যোগ দেন ২০৫ জন। বর্তমানে এই ব্যাচের ২০০ জন কর্মরত আছেন। তাদের মধ্যে থেকে ১৭৮ জনের তালিকা পদোন্নতির জন্য পাঠানো হয় বলে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়।

Share this post

scroll to top
error: Content is protected !!