DMCA.com Protection Status
ADS

শেষ পর্যন্ত মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের ‘বিতর্কিত’ সচিব মাসুদ সিদ্দিকী ওএসডিঃকঠিন শাস্তির দাবী জনগনের

k-h-masud_siddique মুক্তিযুদ্ধে বিশেষ অবদানের জন্য বিদেশী বন্ধুদের দেয়া সম্মাননা ক্রেস্টে সোনা জালিয়াতি এবং নিজের নামে ভুয়া মুক্তিযুদ্ধ সনদ নেয়ার অভিযোগে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ‘বিতর্কিত’ সচিব কেএইচ মাসুদ সিদ্দিকিকে বিশেষ ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওএসডি) করা হয়েছে।

সোমবার জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে এ সংক্রান্ত একটি প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা গত বৃহস্পতিবার তার ওএসডি ফাইলে স্বাক্ষর করেন। আগামী ৩০ অক্টোবর মাসুদ সিদ্দিকীর অবসরোত্তর ছুটিতে যাওয়ার কথা। তিনি চাকরির মেয়াদ এক বছর বাড়াতে ভুয়া মুক্তিযোদ্ধা সনদ তৈরি করেন।

এদিকে পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব এমএ হান্নানকে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের ভারপ্রাপ্ত সচিব করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, মহান মুক্তিযুদ্ধে অবদান রাখা বিদেশি ব্যক্তিত্ব ও সংগঠনকে সম্মাননা দেয়ার জন্য ২০১২ সালে সরকার ৩৩৮টি ক্রেস্ট তৈরি করে। সম্মাননা পাওয়া ব্যক্তিদের মধ্যে ছিলেন ভারতের প্রয়াত প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী, সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়নের প্রেসিডেন্ট লিওনিদ ব্রেজনেভ, সাবেক যুগোস্লাভিয়ার প্রেসিডেন্ট মার্শাল টিটো, ভারতের বর্তমান রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখার্জি প্রমুখ।

প্রতিটি সম্মাননা ক্রেস্টে এক ভরি (১৬ আনা) সোনা ও ৩০ ভরি রুপা থাকার কথা। কিন্তু বিএসটিআইয়ের পরীক্ষায় এক ভরির (১১ দশমিক ৬৬৪ গ্রাম) জায়গায় ক্রেস্টে স্বর্ণ পাওয়া গেছে মাত্র ২ দশমিক ৩৬৩ গ্রাম (সোয়া তিন আনা), ১২ আনাই নেই। আর ৩০ ভরি রুপার বদলে ৩৫১ গ্রাম পিতল, তামা ও দস্তামিশ্রিত সংকর ধাতু পাওয়া গেছে। দরপত্র আহ্বান ছাড়াই এই ক্রেস্ট কেনা হয়েছিল।

উল্লেখ্য এই জগন্য ঘটনা প্রকাশের পর সর্বমহল থেকে এর বিচারের দাবী উঠেছিলো।অবশ্য ঐ সময়কার মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক   প্রতিমন্ত্রী তাজুল ইসলাম সহ অন্যান্যদের বিরুদ্ধে এখনও কোন ব্যবস্থা না নেয়ায় জনমনে অসন্তোষ বিরাজ করছে বলে জানা গেছে।

Share this post

scroll to top
error: Content is protected !!