DMCA.com Protection Status
ADS

আবারও শেষ মুহূর্তের আফসোস

13882_leadআগের দিন রাতে ক্রিকেটাররা হতাশ করেছে পুরো জাতিকে। রুদ্ধশ্বাস লড়াই করেও তিন উইকেটে তারা  হেরেছে পাকিস্তানের কাছে। গতকাল ফুটবলেও ঘটলো প্রায় একই রকম ঘটনা। আক্রমণ পাল্টা আক্রমণের ম্যাচে নির্ধারিত ৯০ মিনিটে এগিয়ে থেকেও ভারতের সঙ্গে জিততে পারলো না বাংলাদেশ। ২-২ গোলে ড্র নিয়ে সন্তুষ্ট থাকতে হলো মামুনুল, সোহেল রানাদের। গেলো বছর নেপালে অনুষ্ঠিত সাফ ফুটবল চ্যাম্পিয়নশিপেও ঘটেছিল প্রায় একই রকম ঘটনা। নির্ধারিত সময় পর্যন্ত ১-০ গোলে লিড ছিল বাংলাদেশের। অতিরিক্ত পাঁচ মিনিটে চার মিনিট পর্যন্ত সবই পক্ষে ছিল। পঞ্চম মিনিটে হঠাৎ কি থেকে কি ঘটে গেলো, ডি বক্সের ঠিক বাইরে ফ্রি কিক পেয়ে বসলো ভারত। তাতেই গোল করে বাংলাদেশের স্বপ্ন ভঙ্গ করলেন সুনীল ছেত্রী। গতকালও সেই সুনীল ছেত্রীই ডোবালো বাংলাদেশকে। কালও অতিরিক্ত সময়ে তার করা গোলে সমতায় ফেরে স্বাগতিক ভারত। ম্যাচে স্বাগতিকদের লিডও এনে দিয়েছিলেন এই ফরোয়ার্ড। আর সমতা ফিরিয়েছিলেন মিঠুন চৌধুরী। এরপরও জিততে পারতো বাংলাদেশ। অতিরিক্ত সময়ের শেষ মিনিটে তকলিসের গোল যদি না ভারতের গোলরক্ষক সুব্রত পালের লাল কার্ডের বিনিময়ে বাতিল না করতেন রেফারি।

১১ বছর ধরে ভারত জাতীয় ফুটবল দলের বিরুদ্ধে জয় পাচ্ছে না বাংলাদেশ। সেই খড়া মিটানোর সুযোগ গেলো সাফের মতো গতকালও পেয়েছিল বাংলাদেশ। গোয়ার পণ্ডিত জওয়াহের লাল স্টেডিয়ামে ফিফা ফ্রেন্ডলি ম্যাচে ৬৫ মিনিটে অনর্ব মণ্ডলের আত্মঘাতী গোলে লিড পায় সফরকারীরা। মিডফিল্ডার হেমন্ত ভিনসেন্ট বিশ্বাসের ক্রস ক্লিয়ার করতে গিয়ে নিজ জালে জড়ান ভারতীয় এই তারকা ডিফেন্ডার। ২-১ গোলের এ লিড নির্ধারিত ৯০ মিনিট পর্যন্ত ভাল ভাবেই ধরেও রাখে ক্রুইফের শিষ্যরা। তবে অতিরিক্ত সময়ে গোল পরিশোধে মরিয়া ভারতের আক্রমণ শানাতে হিমশিম খেতে থাকে বাংলাদেশের ডিফেন্ডাররা। এই সুযোগে ডেনজিল ফ্রেন্সসিসকোর ক্রসে গোল করে সমতায় ফেরান সুনীল ছেত্রী। অতিরিক্ত সময়ের শেষ মিনিটে মাঝমাঠ থেকে মামুনুলের বাড়ানো বলে একক প্রচেষ্টায় পোস্টে ঢুকেছিলেন বদলি ফরোয়ার্ড তকলিস আহাম্মেদ। কিন্তু বক্সের ঠিক বাইরে তাকে ফেলে দেন ভারতীয় গোলরক্ষক সুব্রত পাল। উঠেই বল জালে  জড়ান তকলিস। কিন্তু তকলিসের গোল বাতিল করে সুব্রত পালকে লালকার্ড দেখান ভারতীয় রেফারি। অথচ এমন পরিস্থিতিতে গোল দিয়ে দেয়ার অনেক নজির রয়েছে ফুটবল ইতিহাসে। রেফারি সেটি না করে দিলেন ফ্রি কিক। মামুনুলের ফ্রি কিকে এমিলি মাথা ছোঁয়াতে ব্যর্থ হলে আবারও ২-২ গোলে ড্র নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয় বাংলাদেশকে। এর আগে সাফে দলে থেকেও মাঠে নামতে না পারা ফরোয়ার্ড মিঠুন চৌধুরীর গোলে সমতায় ফিরে মামুনুল বাহিনী। স্বাগতিক ভারতের বিরুদ্ধে ফিফা ফ্রেন্ডলি ম্যাচের ৪৭ মিনিটে সোহেল রানার ক্রসে সমতাসূচক গোলটি করেন  শেখ রাসেলের এই তারকা। ম্যাচের ১৪ মিনিটে সুনীল ছেত্রীর গোলে এগিয়ে গিয়েছিল ভারত।

বাংলাদেশ দল: সোহেল (গোলরক্ষক), নাসির, মিশু, ইয়াসিন, রায়হান, জামাল ভূঁইয়া, হেমন্ত, মামুনুল, সোহেল রানা (লিংকন), মিঠুন চৌধুরী (তকলিস), এমিলি।

Share this post

scroll to top
error: Content is protected !!