DMCA.com Protection Status
ADS

উত্তরার বাসা থেকে সালাহউদ্দিন আহমেদকে আটক করেছে আইনশৃঙ্খলার বাহিনী ;দাবি বিএনপিরঃ অস্বিকৃতি পুলিশের

20dolবুধবার রাত আটটা একচল্লিশ মিনিটে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য নজরুল ইসলাম খান স্বাক্ষরিত এক বিবৃতিতে বলা হয়, “আমরা জানতে পেরেছি মঙ্গলবার রাত ১০টার পর রাজধানীর উত্তরার একটি বাসা থেকে পুলিশ, ডিবি ও র‍্যাব সহ  আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ২০-৩০ জনের একটি দল যুগ্ম মহাসচিব সালাহ উদ্দিন আহমেদকে উঠিয়ে নিয়ে গেছে।

 

একই সঙ্গে বাসায় কর্মরত একজন পুরুষ এবং একজন নারী কর্মীকেও তারা ধরে নিয়ে যায়। এরপর থেকে তার পরিবারের সদস্য এবং রাজনৈতিক সহকর্মীদের সঙ্গে তার যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন রয়েছে। এখন পর্যন্ত তাকে আদালতে হাজির করা হয়নি। এমনকি গ্রেফতারের কথা আইনশৃঙ্খলা কর্তৃপক্ষ প্রকাশও করেনি। এতে তার পরিবার ও রাজনৈতিক সহকর্মীরা তার নিরাপত্তা নিয়ে গভীর উদ্বেগের মধ্যে আছেন। বিবৃতিতে আরো বলা হয়, “গত কয়দিন সালাহ উদ্দিন আহমেদের বাসার কেয়ারটেকার ও দুইজন ড্রাইভারকে বিনা ওয়ারেন্টে গ্রেফতার করে তিনদিন পর আদালতে হাজির করা হয়েছিল।”

 

বিবৃতিতে নজরুল ইসলাম খান আরো বলেন, “দলের ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ও যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ গ্রেফতার হওয়ার পর থেকে সালাহ উদ্দিন আহমেদ দলের মুখপাত্র হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন। দল ও জোটের পক্ষে কর্মসূচি ঘোষণা ও বিবৃতি দেয়ার কারণে তিনি সরকারের বিরাগভাজন হওয়ায় তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে।”

 

নজরুল ইসলাম খান সালাহ উদ্দিন আহমেদ ও তার সঙ্গে গ্রেফতারকৃত কর্মী দুইজনকে অবিলম্বে মুক্তির দাবি জানিয়েছেন। একই সঙ্গে ‘বিরোধী রাজনৈতিক নেতাদের গোপনে তুলে নিয়ে যাওয়ার মতো অন্যায়, বেআইনি ও স্বৈরাচারি কার্যক্রম’ বন্ধ করতে সরকারের প্রতি দাবি জানান।

 

যদিও যথারীতি পুলিশ ও র‌্যাবের পক্ষ থেকে জানানো হচ্ছে- এ ব্যাপারে তাদের কাছে কোনো তথ্য নেই। ডিএমপির মিডিয়া সেলের সহকারী কমিশনার ইফতেখার জানান, সালাহ উদ্দিনের আটকের বিষয়ে তারা কিছুই জানেন না। এছাড়া পুলিশ তাকে আটক করেনি বলেও তিনি জানান।ইতিপূর্বে নাগরিক ঐক্য আহবায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না কেও র‍্যাব উঠিয়ে নিয়ে যাবার প্রায় ২৪ ঘন্টা পর্যন্ত বিষয়টি অস্বিকার করেছিলো পুলিশ।

Share this post

scroll to top
error: Content is protected !!