DMCA.com Protection Status
ADS

বিশ্বকাপ ক্রিকেটঃ ভারত কি বাংলাদেশকে ভয় পাচ্ছে ???

wccবিশ্বকাপ ক্রিকেটে গ্রুপ পর্বের খেলায় যদিও একটি ম্যাচ বাকি রয়েছে বাংলাদেশের, তাতে কি। ইতোমধ্যে বাংলাদেশকে নিয়ে হিসাবে-নিকেশ করতে শুরু করেছে ভারত।

 

এর প্রধান কারণ হলো গ্রুপ ‘বি’র পয়েন্ট তালিকায় শীর্ষে রয়েছে ভারত। কোয়ার্টার ফাইনাল খেলার নিয়ম অনুযায়ী ‘বি’ গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন বনাম ‘এ’ গ্রুপের চতুর্থ দল। ভারত ধরে নিয়েছে বাংলাদেশ হবে ‘এ’ গ্রুপের চতুর্থ দল। অ্যাডিলেডে ইংল্যান্ডকে হারানোর পর ভারতীয় কিংবদন্তি বলেছেন, কোয়ার্টার ফাইনালে ইংল্যান্ডই ভারতের জন্য সহজ প্রতিপক্ষ হতো। ইতিহাস, ঐতিহ্য, ঐশ্বর্য থাকলেও ক্রিকেট-ফুটবলে ইংলিশদের অর্জন সামান্যই। গাভাস্কার তাই ইংল্যান্ডকে দিলেন একটা মোক্ষম খোঁচা, ক্রিকেট, ফুটবল দুটোতেই ইংল্যান্ড একটা ওভাররেটেড দল।

 

কারণ, ২০০৭ সালে টাইগারদের কাছে হেরে বিশ্বকাপের প্রথম রাউন্ড থেকে বিদায় নিতে হয়েছিলো বর্তমান চ্যাম্পিয়নদের। সেই স্মৃতি মনে করে ভারতের সাবেক ক্রিকেটার সুনীল গাভাস্কার তো বলেই দিলেন, তবে ভারত অধিনায়ক কী চাইছেন, বাংলাদেশের চেয়ে ইংল্যান্ডই হতো তাদের সহজ প্রতিপক্ষ! এ দফাও পেলেন, বাংলাদেশের এ সাফল্যের অন্যতম কারিগর মুশফিকুর রহিমের ধারাবাহিকতা। অভিষেক থেকে এখন পর্যন্ত তার অবিশ্বাস্য উন্নতি। মূলত তার সহযোগিতায় মাহমুদউল্লাহর ব্যাট থেকে এসেছে শতক। বাংলাদেশ সমর্থকদের বরাবরই পছন্দ করেন গাভাস্কার।

 

বাংলাদেশকে ভয়ের পেছনে প্রধান কারণ হলো সেই বিশ্বকাপে বাংলাদেশের পেসার মাশরাফি বিন মর্তুজার কাছেই হেরেছিলে তারা। আট বছর আগে যে মাশরাফিদের কাছে হেরেছিলো তারা সেই মাশরাফি দারুণ ফর্মে থেকেই এবার বাংলাদেশ দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন। সে ম্যাচে ৯.৩ ওভারে মাত্র ৩৮ রানে ৪ উইকেট নিয়ে ম্যাচসেরা হয়েছিলেন মাশরাফি। এবারের বিশ্বকাপেও দারুন ফর্মে রয়েছেন মাশরাফি। শুধু বোলিংয়ে-ই নয়, সঙ্গে টাইগারদের দলকে সফলভাবেই নেতৃত্ব দিয়ে যাচ্ছেন তিনি।

 

বাংলাদেশ জয়ের আগেও গাভাস্কার বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের প্রশংসা করেছিলেন। এবার ইংলিশদের হারানোর পর তিনি বলেন, বাংলাদেশের এ সাফল্যের অন্যতম কারিগর মুশফিকুর রহিমের ধারাবাহিকতা। অভিষেক থেকে এখন পর্যন্ত তার অবিশ্বাস্য উন্নতি। মুশফিকের সহযোগিতায় মাহমুদউল্লাহর ব্যাট থেকে এসেছে দারুণ শতক। এদিকে দাদা টাইগারদের প্রতি অনুরোধ করে বললেন কোয়ার্টার ফাইনালে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ যদি ভারত হয়ে যায়, তাহলে বাংলাদেশ দল ওই ম্যাচে ভারতকে কষ্ট দেবে সে কথা স্বীকার করে নেন তিনি। “বাংলাদেশ যাতে ভারতকে বেশি কষ্ট না দেয়, যেনো হারিয়ে না দেয় সেই অনুরোধ জানাচ্ছি,” হাসতে হাসতে বলেন সৌরভ গাঙ্গুলি।

 

আট বছর বোলিংয়ে ঝড় তুলে ভারতকে উড়িয়ে দিয়েছিলেন মাশরাফি বিন মর্তুজা। এবার কোয়ার্টার ফাইনালে ভারতকে নিয়ে নিজের পরিকল্পনা সম্পর্কে জানতে চাইলে নড়াইল এক্সপ্রেস সোমবার স্টার স্পোর্টসকে বলেন, আমি কেবল একটি স্মৃতিই মনে করতে পারি, ওই ম্যাচে আমি ম্যাচ সেরা হয়েছিলাম। সেটাও অনেক আগের কথা, প্রায় আট বছর তো হবেই। মনে হয় না, ওটা এখন তেমন কোনো সাহায্য করবে। তবে নির্দিষ্ট দিনে যদি আমরা ভালো খেলতে পারি, ভিন্ন কিছুই হবে।

 

এছাড়া মাশরাফি বলেন, “কোয়ার্টার ফাইনালে ভারতকে নিয়ে চিন্তা করার আগে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে আমাদের ম্যাচ রয়েছে। এ ম্যাচে আমাদের ভালো খেলতে হবে, যেন ভারতের বিপক্ষে দারুণ আত্মবিশ্বাসী হয়ে মাঠে নামতে পারি।” সবার আগে ভারতের মিডিয়াতেই প্রকাশিত হয়েছে মাশরাফির এসব মন্তব্য । ইংলিশদের হারানোর পর তিনি স্টার স্পোর্টসকে বলেন, “আমি কেবল একটি স্মৃতিই মনে করতে পারি, ২০০৭ সালে বিশ্বকাপে ওই ম্যাচে আমি ‘ম্যান অব দ্য ম্যাচ’ হয়েছিলাম। সেটি প্রায় ৮ বছর আগের কথা। তবে; আমরা যদি নির্দিষ্ট দিনে ভালো খেলতে পারি– অবশ্যই ভালো কিছু হবে।

Share this post

scroll to top
error: Content is protected !!