DMCA.com Protection Status
ADS

ভাড়ার বদলে সেক্স!

image_80334_0যুক্তরাজ্যের ট্যাক্সিচালকদের নারী যাত্রীদের সঙ্গে ভাড়ার বদলে সেক্স করার বিরুদ্ধে সতর্ক করে দেয়া হয়েছে। গত কয়েকমাস আগে ইংল্যান্ডের ক্লেভল্যান্ডেরর হার্টলেপুল শহরে এ ধরণের এক ঘটনা প্রকাশিত হওয়ার পর  চালকদের এ হুমকি দেয়া হল।

 
চালকদের নারী যাত্রীদের সঙ্গে যৌন সম্পর্ক স্থাপনের বিরুদ্ধে চালকদের সতর্ক করে হার্টলেপুল শহরের ট্যাক্সি ফার্মগুলোতে  চিঠিও পাঠানো হয়েছে। একই সঙ্গে তাদের ড্রাইভিং লাইসেন্স বাতিল এবং চাকরি থেকে বরখাস্ত করারও হুমকি দেয়া হয়েছে। হার্টলেপুল শহরের একটি প্রধান ট্যাক্সিফার্ম এ কথার সত্যতা স্বীকার করে ডেইলি মেইলকে জানান, নারী যাত্রীরা প্রায়ই ভাড়ার বদলে চালকদের সঙ্গে সেক্স করার প্রস্তাব দিয়ে থাকে।
 
গত ডিসেম্বরে ক্লেবেল্যান্ডের হার্টরেপোল শহরের এক নারী  ট্যাক্সি করে নিজ বাড়িতে যান। বাড়ির দরজার পৌঁছে তিনি চালককে জানান তার কাছে কোনো টাকা নেই। তখন তিনি ভাড়ার বদলে চালককে তার সঙ্গে সেক্স করার প্রস্তাব দেন। সঙ্গে সঙ্গে রাজি হয়ে যান দুষ্টু ড্রাইভারও। গাড়ির পিছনের সিটে গিয়ে দুজনে এ অপকর্মটি করেন। কিন্তু ওই ট্যাক্সিওয়ালার ভাগ্য খারাপই বলতে হয়। ঘটনাটি জানাজানি হয়ে যাওয়ার পর তার ড্রাইভিং লাইসেন্স বাতিল করা হয়েছে এবং শহরের রাস্তায় তাকে করা হয়েছে নিষিদ্ধ । 
 
নইলে হার্টলেপুলে কিন্তু এটি কোনো বিরল ঘটনা নয়। শহরটিতে প্রায়ই নাকি এরকম ঘটনা হয়ে থাকে। তবে এ ঘটনা জানাজানি হওয়ায় এবার ক্ষেপেছেন শহরটির কাউন্সিল।
 
এ সম্পর্কে হার্টরেপোলের এক ট্যাক্সিফার্মের কর্মচারী জানান,‘এ ঘটনায় আমি অবাক হয়নি। শহরের মেয়েদের জন্য এটি তো খুব সাধারণ ব্যাপার। তাদের কাছে পয়সা কম থাকলে বা ভাংতি না থাকলে তারা চালকদের ওই কুপ্রস্তাবটি দিয়ে থাকেন।’
অন্য ফার্মের এক চালক ডেইলি মেইলকে বলেন,‘আমরা এরকম অনেক ঘটনা শুনেছি। বিশেষ করে রাতের বেলা মেয়ে যাত্রীরা এ ধরনের প্রস্তাব দিয়ে থাকে। বেশিরভাগ চালকই তাদের এ প্রস্তাব হেসে উড়িয়ে দেন। কোনো কোনো লোভি চালক অবশ্য এতে রাজি হয়ে যান।’
 
গত ১১ ফেব্রুয়ারি ‘ভাড়ার বদলে সেক্স’ সঙ্কট নিয়ে ট্যাক্সি মালিক সমিতি এক বার্ষিক বৈঠকে মিলিত হয়।বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী সম্প্রতি তারা হার্টলেপুলের সকল ট্যাক্সিফার্মকে সতর্কবার্তাটি পাঠায়।
 
সেখানে চালকদের উদ্দেশ্য করে বলা হয়,‘ চালকদের এই মর্মে সতর্ক করে দেয়া হচ্ছে যে, তাদের কোনো অনৈতিক আচরণ সহ্য করা হবে না।যদি গাড়ির পিছনের আসনে কোনো চালককে যদি নারী যাত্রীর সঙ্গে সেক্স করতে দেখা যায়, তবে তার লাইসেন্স বাতিল করা হবে।’ চিঠিতে আরো বলা হয়,‘কোনো নারী যাত্রী যদি তাদেরকে এ ধরণের কোনো যৌন প্রস্তাব দেয় তবে চালকদেরকে তা বিনয়ের সঙ্গে প্রত্যাখ্যান করারও নির্দেশ দেয়া হচ্ছে।’
 
কর্তৃপক্ষের এই হুমকিতে কতটা কাজ হয় এখন সেটাই দেখার বিষয়।
 
 
হার্টরেপোলের কাউন্সিল অফিস

Share this post

scroll to top
error: Content is protected !!