DMCA.com Protection Status
ADS

জিয়া পরিবার নিয়ে চরম মিথ্যাচার বন্ধ করুনঃশেখ হাসিনার প্রতি মির্জা ফখরুল।

ক্যাপ্টেন(অবঃ)মারুফ রাজুঃ  বাংলাদেশের ৩বারের প্রধানমন্ত্রী এবং  বিএনপি চেয়ারপারসন দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া সম্পর্কে বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলনে দেয়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বক্তব্যকে চরম কুরুচিপূর্ণ আখ্যা দিয়ে অবিলম্বে তার বক্তব্য প্রত্যাহার ও প্রধানমন্ত্রীকে ক্ষমা চাওয়ার আহবান জানিয়েছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

 
আজ শুক্রবার সকালে রাজধানীর গুলশানে চেয়ারপারসনের কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল বলেন, প্রধানমন্ত্রীর কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য শুধু রাজনীতিকে কলুষিত করছে না ভবিষ্যত প্রজন্মের কাছে রাজনীতিবিদের সম্পর্কে ভ্রান্ত ধারণা সৃষ্টি করবে।

তিনি বলেন, আমরা আবারো দৃঢ়তার সঙ্গে বলতে চাই এই সব বানোয়াট তথ্য সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন এবং রাজনৈতিক উদ্দেশ্য প্রণোদিত। আমরা এর তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি ও প্রতিবাদ করছি এবং অবিলম্বে এই ধরণের মানহানিকর মিথ্যা বক্তব্য প্রত্যাহার করে প্রধানমন্ত্রীকে বেগম খালেদা জিয়া এবং জাতির কাছে ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানাচ্ছি।অন্যথায় দেশের আইনুযায়ী ব্যবস্থা নেয়া ছাড়া আর কোন উপায় থাকবে না।


সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল বলেন, গতকাল প্রধানমন্ত্রী সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়ার কল্পিত পাচারকৃত সম্পদের বর্ণনা এবং কল্পিত সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত কল্পিত সম্পদ সম্পকে যে বক্তব্য প্রদান করেছেন তা সর্বৈব মিথ্যা, বানোয়াট ও ভিত্তিহীন। এটি খালেদা জিয়াকে জনগণের কাছে হেয় প্রতিপন্ন করার অপচেষ্টা মাত্র। 


মির্জা ফখরুল বলেন, খালেদা জিয়া বা তার পরিবারের বিরুদ্ধে বিদেশে সম্পদ পাচার বা বিনিয়োগের কোনও তথ্য প্রমাণ নেই। খালেদা জিয়ার সম্পদ নিয়ে গণমাধ্যমগুলো নীরব এবং তা রহস্যজনক- প্রধানমন্ত্রীর এমন মন্তব্যের প্রেক্ষিতে বিএনপির মহাসচিব বলেন, কল্পকাহিনী তৈরি করে জোর করে গণমাধ্যমে তা প্রচারের অপচেষ্টামাত্র। এতে করে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার রাজনৈতিক দেওলিয়াত্ব, প্রতিহিংসাপরায়নতা, রাজনৈতিকসংকির্ণতা, অন্তসারশূণ্যতাই প্রমাণ করে।
বিএনপির মহাসচিব বলেন, কাচের ঘরে বসে অন্যের ঘরে ঢিল ছুড়বেন না। উন্নয়ন, মেগা প্রজেক্টের নামে যে মেগালুট করছেন তা জনগণ জানেন। পদ্মা সেতু প্রকল্প, রূপপুর আনবিক শক্তি প্রকল্প, পায়রা বন্দর, এক্সপ্রেসওয়ে, এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে, ভিওআইপি, স্যাটেলাইট স্টেশন, প্রতিটি সেতু, সড়ক, মহাসড়ক, প্রতিটিআন্তর্জাতিক টেন্ডারে বিলিয়ন বিলিয়ন ডলার লুটের যে অভিযোগ উঠছে জনগণ তা হিসাব নিচ্ছে।


শেখ হাসিনার উদ্দেশে মির্জা ফখরুল বলেন, এদেশের পত্র-পত্রিকা, বিদেশের পত্র-পত্রিকা আপনাদের দলের মন্ত্রী, নেতা ও পরিবারের সদস্যদের বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ প্রকাশ পেতে শুরু করেছে। কানাডার বেগম পাড়া, বৃটেন, আমেরিকা, মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর, বেলারুশ, সুইচব্যাংক, পানামা অবশোর ইনভেস্টম্যান্ট তালিকায় আপনাদের অনেকের নাম উঠে আসছে।


সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির মহাসচিব মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোলান ট্রাম্প জেরুজালেমকে ইসরাইলের রাজধানী স্বীকৃতির দেওয়ার সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ ও নিন্দা জানান।

এই সিদ্ধান্ত থেকে যুক্তরাষ্ট্র প্রেসিডেন্টের প্রতি আহ্বান জানান ফখরুল।
সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির সিনিয়র নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

Share this post

scroll to top
error: Content is protected !!