DMCA.com Protection Status
ADS

শেখ হাসিনার বক্তব্য উস্কানীমূলক,এতে জঙ্গিবাদ প্রশ্রয় পাবে: মির্জা ফখরুল

bnpfakh copy

ক্যাপ্টেন(অবঃ)মারুফ রাজুঃ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বক্তব্য অসত্য, বানোয়াট, ভিত্তিহীন , উস্কানীমূলক ও রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রনিত বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি বলেন, অধিকাংশ হত্যাকান্ডগুলোই প্রকাশ্যে দিবালোকে ঘটেছে। এ সমস্ত নারকীয় ঘটনার ন্যুনতম কোন হদিস বের করতে না পেরে চরম ভাবে ব্যর্থ হয়ে প্রধানমন্ত্রী বিরোধী দলের উপর এ দায়গুলো চাপাচ্ছেন। এই সমস্ত নিখূঁত হত্যাকান্ডগুলো সংঘটিত হওয়া এবং এর সংঘটানকারীদের লাপাত্তা হয়ে যাওয়ার ঘটনা রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ জায়গা অর্থাৎ ক্ষমতাশালীদের ইঙ্গিত না থাকলে এটি কোনভাবেই সম্ভব হতে পারে না।

বৃহস্পতিবার দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে প্রধানমন্ত্রীর তিন দেশ সফর শেষে দেশে ফিরে যে বক্তব্য দিয়েছেন তার প্রতিক্রিয়া জানাতে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

মির্জা ফখরুল বলেন, দেশে কোন অঘটন ঘটলে প্রধানমন্ত্রী বরাবরের মত বিএনপিকে আক্রমন করে বক্তব্য দেন। কোন রকম তথ্য উপাত্ত ছাড়াই বলে দেন বিএনপি জড়িত।

গতকালও সংবাদ সম্মেলনে তিনি এরকম একটি বক্তব্য দিয়েছেন, সকল গুপ্ত হত্যার সাথে কারা জড়িত তার তথ্য সরকার প্রধান হিসেবে আমার কাছে আছে। এর সাথে বিএনপি- জামায়াত জড়িত। প্রধানমন্ত্রীর এ বক্তব্যর তীব্র নিন্দা জানাই। একই সাথে তার এ বক্তব্য প্রত্যাক্ষান করছি।

তিনি বলেন, বর্তমান সরকার বারবার বলছে- তারা জঙ্গি দমন করেছে, দেশে শান্তি শৃংখলা ফিরিয়ে নিয়ে এসেছে। এটা যদি সত্য হয় , তাহলে জঙ্গীদের এতো তীব্র উৎপাত শুরু হলো কী করে ? জঙ্গিবাদ নির্মূলে সরকার তাদের সাফল্যের কথা বারবার ঘোষণা করা সত্তেও জঙ্গীবাদ কী করে ডালপালা ছড়িয়ে দিলো ?

তিনি বলেন ,এতো নিশ্ছিদ্র নিরাপত্তার মধ্যেও কিভাবে তারা জীবনবিনাশী কর্মকান্ড একের পর এক সংঘটিত করে  যাচ্ছে ? 

বিএনপির এই নেতা বলেন, জঙ্গীবাদ নিয়ে প্রধানমন্ত্রী এবং সরকারের মন্ত্রীরা একেক সময়ে একেক জন একেক কথা বলছেন। তাদের স্ববিরোধী কথাবার্তার মধ্যেই মনে হয় কোথাও কোন রহস্য লুকিয়ে আছে। ক্ষমতাসীনদেরও এ ধরনের বক্তব্য পরস্পর বিরোধী । সুতরাং প্রকৃত হত্যাকারীদের চিহিৃত করার চেয়ে বিরোধী দলগুলোর ওপর দোষ চাপিয়ে রাজনৈতিক ফায়দা হাসিলের চেষ্টা করাটাই যেন তাদের মূখ্য উদ্দেশ্য।

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন, বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম আযাদ, সহ দপ্তর সম্পাদক আসাদুল করিম শাহীন, তাইফুল ইসলাম টিপু প্রমুখ। 

Share this post

scroll to top
error: Content is protected !!