DMCA.com Protection Status
ADS

ভোটারদের অধিকার ফিরিয়ে না দিলে কেয়ামত পর্যন্ত নির্বাচন সুষ্ঠু হবে না : আব্দুর রউফ

roufভোটারদের অধিকার তাদের নিজের হাতে না থাকলে কেয়ামত পর্যন্ত নির্বাচন সুষ্ঠু হবে না বলে মন্তব্য করেছেন সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার  বিচারপতি আব্দুর রউফ। আর ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ এবং চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন নির্বাচনের কারচুপির ছবিগুলো হাজার হাজার সিডি কপি করে বাংলাদেশের সমস্ত এলাকায় ছড়িয়ে দেওয়ার আহ্বান জানান তিনি।
 
রোববার বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাবের মিলনায়তনে বাংলাদেশ সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদ আয়োজিত ‘নির্বাচন কমিশন, সিটি করপোরেশন নির্বাচন ও গণতন্ত্রের ভবিষৎ’ শীর্ষক এক গোলটেবিল বৈঠকে সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার বিচারপতি আব্দুর রউফ এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, আজ আমরা কারচুপির নির্বাচন নিয়ে লাফালাফি করছি, কিন্তু কেয়ামত পর্যন্ত নির্বাচন সুষ্ঠু হবে না, যদি ভোটারদের অধিকার তাদের নিজের হাতে না থাকে।

নির্বাচন ‘কমিশনের কাজ হলো কর্ম বুঝে, কর্তা বুঝে নয়’- এমন মন্তব্য করে আব্দুর রউফ বলেন, সিটি করপোরেশনের কারচুপির ছবিগুলো হাজার হাজার সিডি কপি করে বাংলাদেশের সমস্ত এলাকায় ছড়িয়ে দিতে হবে। তাহলে অন্তত তারা তাদের সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে পারবে।

সাবেক এই প্রধান নির্বাচন কমিশনার আরও বলেন, পাকিস্তান আমলে বিনা ভোটে নির্বাচন হতো। আর এখন সিল মেরে (জালিয়াতি) নির্বাচন হয়। তিনি বলেন, ভোট ভোটারের। ভোট দেওয়ার অধিকার ভোটারের। রক্ষার দায়িত্বও ভোটারদের নিতে হবে। তিনি ভোট ও গণতন্ত্র রক্ষার সকলকে ঐক্যবদ্ধ হতে শপথ নেওয়ার আহ্বান জানান।

গণস্বাস্থ্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা ট্রাস্টি ড. জাফরুল্ল্যাহ চৌধুরী বলেন, আমি আগেই বলেছিলাম এই নির্বাচন কমিশনার প্রাথমিক পরীক্ষায় ফেল করেছেন, দেখার বিষয় ছিল তাদের পরবর্তী কার্যক্রম। সেটায়ও তারা নির্মমভাবে ফেল করেছেন।

তিনি বলেন, বেগম খালেদা জিয়া এই সিটি নির্বাচনের মাধ্যমে বুঝিয়ে দিয়েছেন ৫ জানুয়ারি নির্বাচনে না যাওয়ার সিদ্ধান্ত সঠিক ছিলো।

দৈনিক দিনকালের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক ড. রেজোয়ান সিদ্দিকী বলেন, একটি ইস্যু চাপা দিতে অপর ইস্যু সামনে আনা হয়। ডাকাতির নির্বাচনের পর বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব সালাহ উদ্দিন আহমদ ইস্যু আনা হয়েছে। তিনি নাকি নিজেই শিলং গেছেন। তাকে কেউ অপহরণ কিংবা গ্রেফতার করেনি। তিনি প্রশ্ন রেখে বলেন, তাহলে নাগরিক  ঐক্যের আহ্বায়ক মাহমুদুর রহমানের ক্ষেত্রে কী হলো। প্রথমে তো তাকে কেউ গ্রেফতার করেনি বলা হয়েছিলো। পরে ঠিকই র‌্যাব তাকে গ্রেফতার দেখায়।

তিন সিটি কর্পোরেশন নির্বচান বিষয়ে তিনি বলেন, সিটি নির্বচানে কেয়ামত হয়েছে। এমন নিজরবিহীন ভোট ডাকাতির পর সামান্য আত্মসম্মান থাকলেও নির্বাচন কমিশন পদত্যাগ করতো। এদের অধীনে জাতীয় নির্বাচন হলেও বিএনপি নেতৃত্বাধীন জোট ৩০০ আসনের মধ্যে ২৫০ আসনে বিজয়ী হলেও  হয়তো ঘোষণা করে দিতো তারা মাত্র ৩০ আসন পেয়েছে।

ড. সিদ্দিকী বলেন, সবার আগে দাবি, ভবিষ্যতে যেকোনো নির্বচানের আগে বর্তমান নির্বাচন কমিশনের পদত্যাগ ও ইসি পূনর্গঠন করতে হবে। অন্যথায় কোনো নির্বাচনই অবাধ ও সুষ্ঠু হবে না।

আয়োজক সংগঠনের ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক সাংবাদিক রুহুল আমিন গাজীর সভাপতিত্বে ডক্টর্স এ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশের (ড্যাব) মহাসচিব ও বাংলাদেশ সম্মিলিত পেশাজীবী পরিষদের সদস্য সচিব অধ্যাপক ডা: এ.জেড.এম. জাহিদ হেসেনের পরিচালনায় গোলটেবিল বৈঠকে আরো বক্তব্য দেন, প্রফেসর আ.ফ.ম ইউসুফ হায়দার, জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক ভিসি অধ্যাপক ড. খন্দকার মোস্তাহিদুর রহমান, প্রকৌশলী রিয়াজুল ইসলাম রিজু, শিক্ষক কর্মচারী ঐক্যজোটের অতিরিক্ত মহাসচিব জাকির হোসেন, ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের সাংগঠনিক সম্পাদক শহিদুল ইসলাম ও জাতীয়তাবাদী সাংস্কৃতিক দলের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল ইসলাম প্রমুখ। উপস্থিত ছিলেন- ড্যাব কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা: মোস্তাক রহিম স্বপন, এসোশিয়েশন অফ এগ্রিকালচারিস্ট এর সদস্য সচিব- কৃষিবিদ হাসান জাফির তুহিন, শিক্ষক-কর্মচারী ঐক্যজোট অতিরিক্ত মহাসচিব জনাব জাকির হোসেন প্রমুখ।

Share this post

scroll to top
error: Content is protected !!