DMCA.com Protection Status
ADS

ছাত্রদলের নতুন কমিটি দিয়ে বিপাকে বিএনপিঃ কোন্দলে সরকারী মদদের অভিযোগ

download (67) ৫ জানুয়ারি সংসদ নির্বাচনের আগে সরকার পতনের আন্দোলনে ছাত্রদলের ভূমিকা নিয়ে অনেকেই প্রশ্ন তোলেন। তাদের মতে, ছাত্রদল নেতাকর্মীরা মাঠে না নামায় ভেস্তে গেছে বিএনপির সরকার পতনের আন্দোলন।

তাই ভবিষ্যতে সরকারবিরোধী আন্দোলনকে আরও চাঙ্গা করতে এ বছরের শুরুর দিকেই ছাত্রদলকে ঢেলে সাজানোর সিদ্ধান্ত নেন বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া। এজন্য শিক্ষক, রাজনীতিবিদ ও ছাত্রদল নেতাদের সঙ্গে দফায় দফায় বৈঠক করেন তিনি। কিন্তু এতো কিছুর পর যে কমিটি তিনি দিয়েছেন তা বিদ্রোহের আগুনে পুড়ছে।

কমিটি বাতিল না হওয়া পর্যন্ত রোববার সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত প্রতিদিন নয়াপল্টনে অবস্থান কর্মসূচি পালনের ঘোষণা দিয়েছেন পদবঞ্চিত নেতারা। কর্মসূচি চলাকালে রোববার দুপুরে নতুন কমিটির সঙ্গে সংঘর্ষও হয় পদবঞ্চিতদের। এসময় ছাত্রদলের নতুন নেতাদের ধাওয়া দেয় পদবঞ্চিত নেতাকর্মীরা।

জানা গেছে, ছাত্রদলের নতুন কমিটি ঘোষণা করে অনেকটা বিপাকেই পড়েছে বিএনপি। কমিটিতে বিবাহিত, অছাত্র, ছাত্রলীগের ক্যাডার, হত্যা মামলার আসামি যেমন স্থান পেয়েছে তেমনি বাদ পড়েছেন ত্যাগী নেতাকর্মীরা। এমন অভিযোগ তুলে বিভিন্ন জায়গায় অব্যাহতভাবে বিক্ষোভ আর বিদ্রোহ করছেন ছাত্রদলের পদবঞ্চিতরা।

শনিবার দুপুরে নয়াপল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীলকে তালা দিয়ে ২০ মিনিট কার্যালয়ে আটকে রাখেন পদবঞ্চিত নেতাকর্মীরা। এসময় দলের যুগ্ম-মহাসচিব সালাহ উদ্দিন আহমেদ কার্যালয়ে এলে তাকেও ঘিরে রেখে ক্ষোভের কথা জানান তারা। বেলা পৌনে ৩টার দিকে ছাত্রবিষয়ক সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী এবং সহ-ছাত্রবিষয়ক সম্পাদক সুলতান সালাউদ্দিন টুকুর কুশপুতুল দাহ করা হয়।

এছাড়াও কমিটি ঘোষণার পরদিন বুধবার বিকেলে পদবঞ্চিতরা রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভ মিছিল করে। এসময় সাতটি ককটেল বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটে। বিক্ষোভকারীরা ‘এ্যানী-টুকুর পকেট কমিটি ছাত্রসমাজ মানে না’ লেখা সম্বলিত ব্যানার নিয়ে মিছিলও করে।

ঢাকার পাশাপাশি সিলেট, বরিশালসহ বেশ কয়েকটি জেলায় কমিটি নিয়ে ছাত্রদলের সংঘর্ষে কয়েকজন আহত হওয়ার খবরও পাওয়া গেছে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, শুক্রবার সিলেট নগরীর কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার এলাকায় ছাত্রদলের দু’পক্ষে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় সিলেট কোতোয়ালী থানার এসআই কামাল হোসেন বাদী হয়ে মামলা করেন। মামলায় সিলেট জেলা ও মহানগর ছাত্রদল সভাপতি-সাধারণ সম্পাদকসহ ৭০ নেতাকর্মীকে আসামি করা হয়েছে। মামলার পরিপ্রেক্ষিতে ছাত্রদলের চার নেতাকর্মীকে আটক করেছে পুলিশ।

বুধবার ছাত্রদলের নবগঠিত কেন্দ্রীয় কমিটিকে স্বাগত জানিয়ে বরিশালে বের করা জেলা ও মহানগর ছাত্রদলের শুভেচ্ছো মিছিল শেষে দু’গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ হয়েছে।

কমিটির সাধারণ সম্পাদক আকরামুল হাসানের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ‘সিনিয়র কিছু নেতা সরকারের এজেন্ট হিসেবে কাজ করছে।’ তারা ছাত্রদলকে ভেঙে দিতেই এসব বিদ্রোহ করাচ্ছে বলেও তিনি অভিযোগ করেন।

এদিকে বিএনপির ছাত্র বিষয়ক সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরি এ্যানী দৈনিক প্রথম বাংলাদেশকে বলেন, ‘কমিটিতে তরুণদের প্রাধান্য দেয়া হয়েছে। যারা কমিটিতে জায়গা পাননি তাদের অন্য সংগঠনে জায়গা দেয়া হবে।’

মঙ্গলবার রাতে বিএনপির ছাত্রবিষয়ক সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী স্বাক্ষরিত এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ছাত্রদলের ২০১ সদস্যের নতুন কমিটি গঠনের তথ্য জানানো হয়। সদ্য বিলুপ্ত জুয়েল-হাবিব কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক রাজিব আহসানকে সভাপতি এবং যুগ্ম-সম্পাদক আকরামুল হাসানকে সাধারণ সম্পাদক ঘোষণা করা হয়। খালেদা জিয়া ওই কমিটির অনুমোদর দেন।

কমিটিতে সহ-সভাপতি ৩৩ জন, যুগ্ম-সম্পাদক ৩৫ জন, সহ-সাধারণ সম্পাদক ২৭ জন, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক ২৮ জন। আংশিক কমিটির কথা বলা হলেও ১৫৩ জনের নাম পাওয়া যায় বিজ্ঞপ্তিতে।

Share this post

scroll to top
error: Content is protected !!