DMCA.com Protection Status
ADS

চূড়ান্ত প্রস্তুতি নিচ্ছে ২০ দলীয় জোট , শিগগিরই আসছে কঠোর কর্মসূচি

bzpx5vgeনির্দলীয় নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীন নির্বাচন দেওয়ার দাবি আদায়ে আন্দোলনের চূড়ান্ত প্রস্তুতি নিচ্ছে বিএনপির নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোট।

আন্দোলন কর্মসূচি ঘোষণার আগ মুহূর্তে তিনটি জেলা সফর করতে যাচ্ছেন জোটনেতা ও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। তার সফর শেষে এবং চূড়ান্ত প্রস্তুতি সম্পন্ন হলেই সরকারবিরোধী চূড়ান্ত আন্দোলন শুরু করবে ২০ দলীয় জোট।


মঙ্গলবার ছাত্রদলের নতুন কমিটি গঠনের কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে বিএনপির একজন কেন্দ্রীয় নেতা বলেন, আন্দোলনের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করছে ২০ দল।বাংলানিউজের সঙ্গে আলাপে এমনটিই জানিয়েছেন বিএনপি ও জোট নেতারা।

আন্দোলন সফল করতে ইতোমধ্যে ছাত্রদলের নতুন কমিটি গঠন করা হয়েছে। গঠনের প্রক্রিয়ায় রয়েছে যুবদল ও স্বেচ্ছাসেবক দলের কমিটিও। এছাড়া, আগেকার ব্যর্থতা ঝেড়ে রাজধানীর আন্দোলন জমিয়ে তুলতে ঢাকা মহানগরের ৬০টি ওয়ার্ডের কমিটি গঠনও সম্পন্ন করেছে বিএনপি।

কর্মসূচি ঘোষণার আগে নেতাকর্মীদের আন্দোলনে উদ্বুদ্ধ করতে জোটনেতা খালেদা জিয়া লালমনিরহাট, নাটোর ও কুমিল্লা সফর করতে যাচ্ছেন বলেও জানান ওই বিএনপি নেতা।

জোটের একটি দায়িত্বশীল সূত্র জানায়, রাজধানীসহ সারাদেশের আন্দোলন সফল করতে তৃণমূল চাঙ্গা করার লক্ষ্য নিয়ে ইতোমধ্যে পৃথকভাবে এলাকায় চলে গেছেন ২০ দলীয় জোটের নেতারা। বিএনপি, জামায়াতসহ জোটের শরিক দলগুলোর নেতারা এখন মাঠ পর্যায়ের কমিটি গঠনে এবং দল গোছাতে ব্যস্ত সময় পার করছেন।

মূলত কোরবানির ঈদের পরপরই চূড়ান্ত আন্দোলনের প্রস্তুতি পর্ব শুরু হয়েছে বলে জানায় সূত্রটি।

জোট সূত্রে জানা যায়, নভেম্বর মাসের শুরুতে বিক্ষোভ কর্মসূচির মাধ্যমে চূড়ান্ত আন্দোলন শুরু করবে বিএনপি। তার আগে বিএনপির স্থায়ী কমিটি ও নীতি নির্ধারণী পর্যায়ের এবং জোটের শীর্ষ নেতাদের পৃথক বৈঠকে আন্দোলন কর্মসূচির প্রস্তুতি ও সার্বিক করণীয় নিয়ে আলোচনা হবে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপির অপর এক কেন্দ্রীয় নেতা বাংলানিউজকে বলেন, এবারের আন্দোলন ভিন্ন আঙ্গিকে গড়ে তোলা হবে। এবার যেখানে বাধা আসবে সেখানেই প্রতিরোধ গড়ে তোলা হবে।

তিনি বলেন, দেশব্যাপী কর্মসূচি পালনের সময় যেখানে বাধা আসবে সেখানেই স্থানীয়ভাবে তাৎক্ষণিক কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে এবং পালন করা হবে। আর এতে সমর্থন দেবে কেন্দ্র।

বিএনপির ওই নেতা বলেন, বিএনপির পাশাপাশি জামায়াত-শিবিরের কমিটি গঠনও শেষ পর্যায়ে। তৃণমূল বিএনপির অধিকাংশ কমিটি গঠনও চূড়ান্ত পর্যায়ে রয়েছে। দলের ৭৫টি সাংগঠনিক জেলার যেগুলোতে কমিটি গঠন বাকি রয়েছে খুব শিগগির সেসব কমিটিও গঠন করে ফেলা হবে।

আর তিন জেলা সফর শেষে জোটনেতা খালেদা জিয়া নিজেই নতুন কর্মসূচি ঘোষণা করবেন বলে জানান বিএনপির ওই নেতা।

আন্দোলনের প্রস্তুতির ব্যাপারে জোটের অন্যতম শরিক লেবার পার্টির চেয়ারম্যান ডা. মোস্তাফিজুর রহমান ইরান বলেন, আমাদের চূড়ান্ত আন্দোলনের প্রস্তুতি প্রায় সম্পন্ন। জোটের শরিক সকল দলের জেলাভিত্তিক কমিটি গঠনের কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। এ কাজ সম্পন্ন হলে শিগগির কর্মসূচি ঘোষণা হবে।

বিএনপির দফতরের দায়িত্বে থাকা যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী আহমেদ বলেন, আমাদের আন্দোলনের চূড়ান্ত প্রস্তুতি চলছে। আন্দোলন সফল করতে ২০ দলীয় জোটের নেতারা সারাদেশে নিরলস কাজ করে চলেছেন।

খুব শিগগির নির্দলীয় তত্ত্বাবধায় সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে সরকারকে বাধ্য করতে খালেদা জিয়া আন্দোলন কর্মসূচি ঘোষণা করবেন বলে জানান রিজভী।

Share this post

scroll to top
error: Content is protected !!