DMCA.com Protection Status
ADS

আপাততঃ মিশরের দেয়া যুদ্ধবিরতি প্রস্তাব মেনে নিলো ইসরায়েল

gaza-attack-12-07_123158_85260গাজায় মিশরের যুদ্ধবিরতি প্রস্তাব মেনে নিলো ইসরায়েল। এর আগে সোমবার মিশরের পক্ষ থেকে যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব করা হলে ইসরায়েল এবং হামাস উভয়পক্ষ থেকে ইতিবাচক সাড়া পাওয়ার ইঙ্গিত পাওয়া যায়। সপ্তাহব্যাপী সহিংসতার পর মঙ্গলবার থেকে এ যুদ্ধবিরতি কার্যকর হচ্ছে।

অবশ্য এর আগে জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের পক্ষ থেকে যুদ্ধবিরতির আহ্বান জানানো হলেও ইসরায়েল এর কোন তোয়াক্কা না করে গাজা উপত্যকায় বিমান হামলার পাশাপাশি স্থল হামলা অব্যাহত রাখে। ইসরায়েলর এ হামলায় বিশ্বব্যাপী যে নিন্দা ও প্রতিবাদের ঝড় উঠে এর তোয়াক্কাও করেনি।

তবে ইসরায়েলের ঘনিষ্ঠ মিত্র বলে পরিচিত মিশরের সেনা শাসক জেনারেল সিসির দেয়া যুদ্ধবিরতি প্রস্তাব মেনে নিলো ইসরায়েল।

মঙ্গলবার সকালেই ইসরায়েলি নিরাপত্তা বিষয়ক মন্ত্রিসভা যুদ্ধবিরতির প্রস্তাব নিয়ে আলোচনায় বসে। আলোচনা শেষে দেশটির কর্তৃপক্ষ মিশরের দেয়া যুদ্ধবিরতি প্রস্তাব মেনে নেয়া হয়েছে বলে জানায়।

এর আগে সোমবার যখন যুদ্ধবিরতি নিয়ে কথাবার্তা চলছে, তখনো ইসরায়েলি বাহিনী ফিলিস্তিনে তাদের বিমান হামলা অব্যাহত রাখে। হামাসও ইসরায়েলি সীমান্তের অভ্যন্তরে রকেট ছুড়ছে।

ফিলিস্তিনিরা জানিয়েছে, ইসরায়েলি হামলায় এখনো পর্যন্ত ১৮০ জনেরও বেশী মানুষ নিহত হয়েছে। তবে হামাসের হামলায় এখনো পর্যন্ত কোন ইসরায়েলি নাগরিক প্রাণ হারায়নি।

দুই পক্ষের উচ্চপর্যায়ের প্রতিনিধিদের সাথে কয়েকদফা বৈঠকের পর মিশরের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রস্তাবিত এই উদ্যোগ অনুযায়ী, মঙ্গলবার সকাল থেকেই যুদ্ধবিরতি কার্যকর করার আহ্বান জানানো হয়।

মিশরের এই প্রস্তাবটি এমন সময়ে করা হলো, যখন আরব লীগের পররাষ্ট্রমন্ত্রীরা কায়রোতে একটি জরুরী বৈঠকে বসতে যাচ্ছে।

এর আগে গাজার নিয়ন্ত্রণে থাকা হামাস নিশ্চিত করেছে যে যুদ্ধবিরতির চেষ্টা চলছে, তবে এখনো পর্যন্ত কোন চুক্তি হয়নি। হামাসের প্রধান ইসমাইল হানিয়া বলেছেন, তারাও একটি যুদ্ধবিরতি চাচ্ছেন।

এদিকে ইসরায়েলি কর্মকর্তারা বলছিলেন, প্রস্তাবটির বিষয়ে আলোচনার জন্য প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহুর নিরাপত্তা বিষয়ক মন্ত্রিসভা মঙ্গলবার সকালে বৈঠকে বসছে।

 

Share this post

scroll to top
error: Content is protected !!