DMCA.com Protection Status
ADS

সরকার বিরোধী প্রচারনা ঠেকাতে জয়ের নেতৃত্বে ফের সক্রিয় হচ্ছে আওয়ামী লীগের ‘সাইবার টিম’

image_88895_0ফেসবুক, টুইটারসহ বিভিন্ন সামাজিক গণমাধ্যমে সরকারের বিরুদ্ধে বিএনপি-জামায়াত জোটের অপপ্রচার ঠেকাতে ‘সাইবার টিম’ ফের সক্রিয় করছে আওয়ামী লীগ।



একইসঙ্গে বিএনপি-জামায়াতের ধ্বংসাত্মক কর্মকাণ্ড নিয়ে প্রামাণ্যচিত্র (ডকুমেন্টারি) নির্মাণ ও বহুল প্রচারের  সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। দলটির একাধিক নেতার সঙ্গে কথা বলে এ তথ্য জানা গেছে।



আওয়ামী লীগের নীতিনির্ধারকদের মতে, মানবতাবিরোধী অপরাধে অভিযুক্ত মাওলানা দেলাওয়ার হোসাইন সাঈদী ও অন্যদের রায়কে কেন্দ্র করে জামায়াত-শিবির অনলাইনে আবার সরকারের বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছে। বিভিন্ন ধর্মীয় উস্কানিমূলক অপপ্রচার দেশের মানুষকে ক্ষেপিয়ে তুলছে সরকারের বিরুদ্ধে।




download (4)তারা জানান, এ অপপ্রচার ঠেকাতে দলটির সাইবার টিমকে আরো বেশি সক্রিয় করা এবং বিএনপি-জামায়াতের ধ্বংসাত্মক কর্মকাণ্ড নিয়ে ডকুমেন্টারি তৈরি করা হবে। অনলাইনে জামায়াত-শিবিরের অপপ্রচার ঠেকানোর পাশাপাশি প্রচার করা হবে সরকারের উন্নয়নমূলক কর্মকাণ্ডের প্রামাণ্যচিত্রও।



ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সাইবার টিমের প্রধান হিসেবে দায়িত্বে রয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা ও ছেলে সজিব ওয়াজেদ জয়। জয়ের নেতৃত্বে কাজ করবে দেশের বিভিন্ন বেসরকরি বিশ্ববিদ্যালয়ের তরুণ মেধাবী বেশকিছু ছাত্র-ছাত্রী। এ কাজে তাদের সহোযোগিতা করবে দলটির দপ্তর সম্পাদক আবদুস ছোবহান গোলাপ এবং প্রচার ও প্রকাশনা বিভাগ।



সাইবার টিমকে আগের চেয়ে আরো শক্তিশালী করতে আওয়ামী লীগ সভাপতির ধানমণ্ডির রাজনৈতিক কার্যালয়ে বসানো হয়েছে ইন্টারনেটের নেটওয়ার্ক টাওয়ার, তৈরি করা হচ্ছে অত্যাধুনিক তথ্যকেন্দ্র, গঠন করা হয়েছে তথ্যসেল।



এ বিষয়ে আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেন, ‘ছাত্রলীগের মেধাবী তরুণদের নিয়ে এ সাইবার টিম গঠন করা হয়েছিল। তারা ২০১৩ সালে নভেম্বর থেকে কাজ করছে। আমাদের তথ্য ও গবেষণা এবং প্রচার ও প্রকাশনা শাখা তাদের সার্বিক সহযোগিতা করছে। এখন তাদের আগের চেয়ে আরো শক্তিশালী করা হচ্ছে।’



তিনি আরো বলেন, ‘সাইবার টিমটি বিশেষ করে ফেসবুক, টুইটার, ইউটিউবসহ বিভিন্ন ব্লগে বিএনপি- জামায়াত জোটের অপপ্রচারের বিরুদ্ধে কাজ করছে। এছাড়া তারা বিভিন্ন সংবাদপত্র, বই, বিভিন্ন ভিডিও ফুটেজ, ছবি সংগ্রহ করে একটি তথ্য সম্ভার গড়ে তুলবে।’



হাছান বলেন, ‘এছাড়া সংগ্রহ করা তথ্যগুলো বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন সংস্থার কাছে পাঠাই। দল এবং সরকারের ভালো কাজের ওপর পোস্ট তৈরি করে সেগুলো অনলাইন মাধ্যমে প্রচার করি। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কাজ হচ্ছে, বিভিন্ন বিষয়ের রেফারেন্স দেয়ার জন্য তথ্য সরবরাহ করা।’  



আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপ বলেন, ‘এরইমধ্যে অফিসে ওয়াইফাই সংযোগ দেয়া হয়েছে। এছাড়া দলীয় অনলাইন পত্রিকা, অনলাইন রেডিও এবং অনলাইন লাইব্রেরি করার কাজ অনেকটাই সম্পন্ন হয়েছে।’



ডকুমেন্টারি তৈরির বিষয়ে আওয়ামী লীগের উপ-প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক উসিম কুমার উকিল  বলেন, ‘নির্বাচনপূর্ব সময় থেকে গত এক বছরে বিএনপি-জামায়াত জোটের ধ্বংসাত্মক কর্মকাণ্ড দেশে-বিদেশে তুলে ধরার লক্ষ্যে একটি অ্যালবাম তৈরির কাজ চলছে। বিএনপি-জামায়াতের অপরাজনীতি সম্পর্কে জনগণকে সচেতন করতে ও এদের বিরুদ্ধে জনমত গড়ে তুলতে আমরা এ কাজটি হাতে নিয়েছি।’



প্রসঙ্গত, ২০০৩ সালে বিএনপি-জামায়াত জোটের শাসনামলে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে একটি অ্যালবাম করা হয়েছিল। ‘রেপ অব দ্য নেশন’ নামের ওই অ্যালবামে তৎকালীন বিএনপি-জামায়াত জোটের অত্যাচার, নির্যাতন, হত্যা, ধর্ষণ ও লুটপাটের চিত্র তুলে ধরা হয়েছিল, যা সারাদেশে সাধারণ জনগণের সামনে তুলে ধরা হয়।



দলটির অনেকে নেতার মতে, গতবারের এ প্রচারণা আওয়ামী লীগের জনপ্রিয়তা বৃদ্ধি ও ক্ষমতায় আসতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে। তাই এবার সে পদ্ধতি কাজে লাগানো হচ্ছে।



উল্লেখ্য, গত ৫ এপ্রিল দলটির কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সভায় দলটির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম বলেন, ‘সাইবার যুদ্ধ শুরু হয়ে গেছে। এ ব্যাপারে আমাদের গুরুত্ব দিতে হবে। স্বাধীনতাবিরোধীদের অপপ্রচারে তরুণ প্রজন্ম যাতে বিভ্রান্ত না হয় সে জন্য সবাইকে সজাগ থাকতে হবে। এ নিয়ে যাতে ভয়াবহ পরিস্থিতি সৃষ্টি না হয়, সেজন্য আমাদের প্রস্তুতি নিতে হবে।’



তার বক্তব্যের সঙ্গে একমত পোষণ করে অনানুষ্ঠানিক বক্তব্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘আসলেই এটা সত্য। আমাদের ভবিষ্যতের জন্য তৈরি হতে হবে। যাতে ভয়াবহ অবস্থা তৈরি হতে না পারে।’

Share this post

scroll to top
error: Content is protected !!