DMCA.com Protection Status
ADS

ব্যস্ত কামরান, আরিফ নীরব

image_81061_0সিলেট সদর ও দক্ষিণ সুরমা উপজেলা নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী দলীয় প্রার্থীদের সঙ্গে মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাবেক সিটি মেয়র বদর উদ্দিন আহমদ কামরান প্রচার-প্রচারণায় ব্যস্ত সময় পার করলেও বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও বর্তমান সিটি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী নীরব রয়েছেন।
 
এ অবস্থায় মেয়র আরিফের বিরুদ্ধে দলীয় নেতাকর্মীরা ক্ষোভ প্রকাশ করেন। তাদের অভিযোগ, মেয়র নির্বাচিত হওয়ার পর থেকে বিএনপির কেন্দ্রীয় সদস্য আরিফ দলীয় নেতাকর্মীদের কাছ থেকে দূরে থাকার চেষ্টা করছেন। অথচ গত সিটি করপোরেশন নির্বাচনে দিনরাত অক্লান্ত পরিশ্রম করে এই নেতাকর্মীরাই আরিফের বিজয় নিশ্চিত করেছিল।

বিএনপির একটি নির্ভযোগ্য সূত্র জানায়, দক্ষিণ সুরমা ও সদর উপজেলায় বিএনপির একাধিক প্রার্থী থাকায় মেয়র আরিফ বেকায়দায় রয়েছেন। সদর উপজেলায় বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য আবুল কাহের শামীম ও উপজেলা বিএনপির সভাপতি শাহ জামাল নূরুল হুদা নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তারা দুজনই নিজেদের দলীয় প্রার্থী বলে দাবি করছেন। তবে দলীয় সমর্থন পাওয়া নিয়েও অনেক নাটকীয়তা ঘটেছে। শেষ পর্যন্ত স্বয়ং বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া সিদ্ধান্ত দিয়েও নির্বাচনী মাঠে বিদ্রোহী প্রার্থীকে ঠেকাতে পারেননি।
একই অবস্থা দক্ষিণ সুরমা উপজেলাও। এ উপজেলায় ১৯ দলের সমর্থিত প্রার্থী হিসাবে জামায়াতের লোকমান আহমদ প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন।

অপরদিকে এ উপজেলায় জেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আলী আহমদও প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। তিনিও ১৯ দল সমর্থিত প্রার্থীর বিরুদ্ধে প্রচারণা চালাচ্ছেন। তাই এ উপজেলায়ও মেয়র আরিফ নির্বাচনী প্রচারণায় অংশ নিতে বা দলীয় প্রার্থীদের কোনো ধরনের সহযোগিতা করতে দেখা যায়নি। এ উপজেলায় বিএনপির অপর প্রার্থী হলেন এটিএম ফয়েজ।

সিলেট সদর উপজেলায় আওয়ামী লীগের একক প্রার্থী বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান আশফাক আহমদ ও দক্ষিণ সুরমা উপজেলায় আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী আবু জাহিদকে নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণাসহ সার্বিক কাজে কামরান সহযোগিতা করছেন বলে দলীয় সূত্রে জানা গেছে।
এ উপজেলায় বিএনপির একাধিক প্রার্থী থাকায় বিপাকেই রয়েছেন মেয়র আরিফ। তাই তিনি ধরি মাছ না ছুঁই পানির মতো চলাফেরা করছেন।

এদিকে, গত শুক্রবার বিকেলে নগরীর আম্বরখানায় সিলেট সদর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদপ্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান আলহাজ আশফাক আহমদের প্রধান নির্বাচনী কার্যালয়ের উদ্বোধন করা হয়। এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন- সাবেক সিটি মেয়র ও মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি বদর উদ্দিন আহমদ কামরান। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক সংসদ সদস্য শফিকুর রহমান চৌধুরী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট নিজাম উদ্দিন, অধ্যক্ষ সুজাত আলী রফিক, নাছির উদ্দিন খান, মহানগর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক শফিউল আলম চৌধুরী নাদেল প্রমুখ।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সিলেট সদর উপজেলার শান্তি, উন্নয়নের অগ্রযাত্রা অব্যাহত রাখতে আসন্ন নির্বাচনে যোগ্য ও পরিক্ষিত প্রার্থী বর্তমান উপজেলা পরিষদের সফল চেয়ারম্যান আলহাজ আশফাক আহমদকে পুনরায় ভোট দিয়ে নির্বাচিত করার আহ্বান জানান কামরান।

সিলেট সিটি করপোরেশনের মেয়র আরিফুল হক চৌধুরী উপজেলা নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীদের সঙ্গে প্রচারণা করলে আচরণবিধি লঙ্ঘন হবে কি না এমন প্রশ্নের জবাবে সিলেট আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা এসএম এজহারুল হক দৈনিক প্রথম বাংলাদেশকে বলেন, ‘দলীয় প্রার্থীদের সহযোগিতা করতে পারবেন। তবে নির্বাচনী প্রচারণায় সরকারি গাড়ি ব্যবহার করতে পারবেন না।

Share this post

scroll to top
error: Content is protected !!