DMCA.com Protection Status
ADS

ফেসবুকে মেয়ের স্ট্যাটাসে বাবার ৬২ লাখ টাকা গচ্চাঃ ফেসবুক ব্যাবহারকারীগন সাবধান!

image_80138_0ফেসবুকে মেয়ের দেয়া একটি উল্লসিত স্ট্যাটাসের কারণে বাবা হারালেন পাওনা ৮০ হাজার মার্কিন ডলার (প্রায় ৬২ লাখ ৪০ হাজার টাকা)। যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যের মিয়ামিতে এ ঘটনা ঘটেছে।

‘হতভাগ্য’ সে বাবার নাম প্যাট্রিক স্নে (৬৯), তিনি ফ্লোরিডার স্বনামধন্য গালিভার প্রিপারেটরি স্কুলের প্রধান শিক্ষক ছিলেন। স্কুল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে তার চুক্তি ছিল ২০১১ সাল পর্যন্ত তিনি স্কুলটির প্রধান শিক্ষক থাকবেন।

কিন্তু তাকে ২০১০ সালে পদচ্যূত করা হলে তিনি মামলা করেন। স্কুল কর্তৃপক্ষ তখন তার সঙ্গে একটি সমঝোতায় আসে।

সমঝোতাটি হলো হলো, প্যাট্রিক স্নেকে গালিভার স্কুল কর্তৃপক্ষ ১০ হাজার মার্কিন ডলার ‘ব্যাক পে’ করবে। চুক্তি নবায়ন না করার জন্য এটা তাকে দেয়া হবে। আর প্রাপ্য ক্ষতিপূরণ হিসেবে দেবে আরও ৮০ হাজার ডলার। এছাড়া স্নের আইনজীবীর ৬০ হাজার ডলার খরচও বহন করবে স্কুলটি।

কিন্তু স্কুল কর্তৃপক্ষ শর্ত দিয়েছিল পুরো ব্যাপারটি গোপন রাখতে হবে। স্কুল কর্তৃপক্ষ, স্নে ও তার স্ত্রী এবং আইনজীবী ছাড়া কেউ জানবে না।

সবকিছুই ঠিকঠাক মতো চলছিল। কিন্তু গোল বাঁধলো যখন স্নের কন্যা বাবা-মায়ের কথা শুনে ফেলে উল্লসিত হয়ে ফেসবুকে একটা স্ট্যাটাস দিয়ে বসলো, যার বাংলা করলে দাঁড়ায়-

‘মা আর বাবা গালিভার স্কুলের সঙ্গে মামলায় জিতে গেছে! আর কর্তৃপক্ষ এখন আমাদের ছুটিতে ইউরোপ ভ্রমণের খরচ বহন করতে যাচ্ছে ৮০ হাজার ডলার দিয়ে! মারো টান! হেঁইয়ো!’

এই স্ট্যাটাস দেয়ার সঙ্গে সঙ্গে তা পৌঁছে যায় তার ১২ হাজার ফেসবুক অনুসারীর কাছে, যাদের মধ্যে অনেকেই ছিলেন গালিভার স্কুলের প্রাক্তন শিক্ষার্থী কিংবা কর্মচারী। তারা কৌতুহলী হয়ে স্কুল কর্তৃপক্ষের সঙ্গে যোগাযোগ করলে স্কুল কর্তৃপক্ষ সঙ্গে সঙ্গে স্নের সঙ্গে চুক্তি বাতিল করে। কারণ শর্ত ভেঙে তা প্রকাশ করা হয়েছে।

আর সেই সঙ্গে মেয়ের বাহাদুরির কারণে বাবা বঞ্চিত হলেন প্রাপ্য ৮০ হাজার ডলার টাকা থেকে।

Share this post

scroll to top
error: Content is protected !!