DMCA.com Protection Status
ADS

নিলামে উঠছে হলমার্কের ১৬ একর জমি

image_78357_0সাভারে হলমার্কের ১৫ দশমিক ৭৩ একর জমি নিলামে তুলছে সোনালী ব্যাংক। ব্যাংকটির পরিচালনা পর্ষদের সদস্য জায়েদ বখত বৃহস্পতিবার বাংলামেইলকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।
জায়েদ বখত বলেন, ‘পাওনা টাকা আদায়ে আমরা হলমার্কের বিরুদ্ধে অর্থঋণ আদালতে মামলা করতে যাচ্ছি। আইন অনুযায়ী মামলা কারার আগে তাদের রাখা মর্গেজ নিলামে তুলেতে হয়। তাই এ জমি নিলামে তোলার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।’ তবে কবে নাগাদ নিলাম অনুষ্ঠিত হবে সে বিষয়ে তিনি নির্দিষ্ট করে বলতে পারেননি। খুব শিগগির নিলাম অনুষ্ঠিত হবে বলে তিনি জানান।

হলমার্ক কেলেঙ্কারির প্রায় দুই বছর পর অবশেষে হলমার্ক গ্রুপের বিরুদ্ধে মামলা করার সিদ্ধান্ত নেয় সোনালী ব্যাংক। একই সঙ্গে এ কেলেঙ্কারির সঙ্গে জড়িত ব্যাংক কর্মর্তাদেরও মামলায় অন্তর্ভুক্ত করে চলতি মাসেই মামলা দায়ের করা হবে বলে ব্যাংকহ সূত্রে জানা গেছে।
২০১০ থেকে শুরু ২০১২ সালের ৩১ মে পর্যন্ত সোনালী ব্যাংক থেকে নানা জালিয়াতির মাধ্যমে ২ হাজার ৯৬৪ কোটি ৪৪ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয় হলমার্ক গ্রুপ। এর মধ্যে এলসি বাতিল, আইবিপি সমন্বয় ও সামান্য নগদ আদায়ের মাধ্যমে ৪০৫ কোটি টাকা আদায় করেছে সোনালী ব্যাংক।

সর্বশেষ ২০১৪ সালের ৩১ মার্চ পর্যন্ত হালনাগাদ হিসাবে, হলমার্ক গ্রুপের কাছে সোনালী ব্যাংকের পাওনা (ফান্ডেড, নন-ফান্ডেড) রয়েছে ২ হাজার ৫৫৪ কোটি ৩৪ লাখ টাকা। এসব টাকা আদায়েই মামলায় যাচ্ছে ব্যাংকটি।
২০১২ সালের আগস্টে মামলা করার সব প্রস্তুতি নিয়েও পুরো টাকা আদায় সম্ভব হবে না এমন ধারণায় মামলা করা থেকে বিরত থাকে সোনালী ব্যাংক। তবে এখন ব্যাংক কর্তৃপক্ষ মনে করছে, মামলা করেই প্রতিষ্ঠানটির কাছ থেকে জালিয়াতির সব টাকা উদ্ধার করা সম্ভব হবে।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, দেনার বিপরীতে হলমার্ক গ্রুপ ৬১ দশমিক ১৭৬ একর জমি বন্ধক রেখেছে। ব্যাংকের হিসাবে, এসব জমির মূল্য ৩৮৯ কোটি ৫৪ লাখ টাকা। হলমার্ক গ্রুপ আরও ৭৬ দশমকি ২৯২১ একর জমির মূল দলিল বা সার্টিফায়েড দলিল সোনালী ব্যাংকের কাছে জমা রেখেছে। এসব জমির মূল্য ব্যাংকের হিসাবে ৭৮০ কোটি ৫০ লাখ টাকা। তবে মালিকপক্ষ কারারুদ্ধ থাকায় এবং অন্যান্য আনুষঙ্গিক কাগজপত্রের অভাবে ৭৬ দশমিক ২৯২১ একর জমির বন্ধকি কাজ সম্পন্ন করা যায়নি।

Share this post

scroll to top
error: Content is protected !!