DMCA.com Protection Status
ADS

আমাদের সশস্ত্র বাহিনীর সাহস ,শৌর্য ও শৃংখলায় জাতি সদা গর্বিতঃ খালেদা জিয়া।

ক্যাপ্টেন(অবঃ)মারুফ রাজুঃ  আমাদের মহান স্বাধীনতা যুদ্ধে নেতৃত্বদানকারী  দানকারী বাংলাদেশের সশস্ত্র বাহিনী সময়ের বিবর্তনে আজ একটি সুশৃঙ্খল, ক্ষিপ্র ও সদা তৎপর  আধুনিক বাহিনীতে পরিণত হয়েছে, যা বিশ্বের যে কোনো আধুনিক রাষ্ট্রের সেনাবাহিনীর সমকক্ষ বলে মন্তব্য করেছেন ৩ বারের প্রধানমন্ত্রী এবং  বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া।

বেগম খালেদা জিয়া বলেন, স্বাধীনতার ঘোষক শহীদ প্রেসিডেন্ট জিয়াউর রহমান বাংলাদেশ সশস্ত্র বাহিনীকে একটি আধুনিক, গতিশীল ও দক্ষ পেশাদার বাহিনী হিসেবে গড়ে তোলার লক্ষ্যে ব্যাপক কর্মসূচি গ্রহণ এবং বাস্তবায়ন করেছিলেন। সেই থেকে পরবর্তীতে আমরা সরকারে থাকতেও সশস্ত্র বাহিনীকে শহীদ জিয়ার গৃহিত কর্মসূচির ধারাবাহিক বাস্তবায়নের অগ্রগতি সাধিত করে এই বাহিনীকে আরো আধুনিকায়ন ও একে শক্তিশালী করে গড়ে তুলতে সচেষ্ট থেকেছি। ভবিষ্যতেও আমাদের এ প্রয়াস অব্যাহত থাকবে।

তিনি বলেন, জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা বাহিনীতে কর্মরত আমাদের সশস্ত্র বাহিনীর সদস্যগণ কর্মদক্ষতা ও উঁচুমানের পেশাদারিত্বের পরিচয় দিয়ে দেশের জন্য প্রভূত  সুনাম বয়ে এনেছে।

সশস্ত্র বাহিনী দিবস উপলক্ষে সোমবার দেওয়া এক বাণীতে বিএনপি চেয়ারপারসন এসব কথা বলেন।

বাণীতে খালেদা জিয়া বলেন, আমি বাংলাদেশ সেনা, নৌ ও বিমান বাহিনীর সকল সদস্যকে জানাই আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। সশস্ত্র বাহিনীর সকল সদস্য ও তাদের পরিবারের অব্যাহত সুখ, শান্তি ও সমৃদ্ধি কামনা করি।

সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী বলেন, সশস্ত্র বাহিনী সাহস, শৌর্য এবং শৃঙ্খলা দিয়ে তৈরী জাতির এক গর্বিত প্রতিষ্ঠান। আমাদের মহান মুক্তিযুদ্ধে এই বাহিনীর গৌরবোজ্জল ভূমিকা ইতিহাসে স্বর্ণাক্ষরে লেখা থাকবে। আমাদের স্বাধীনতা-সার্বভৌমত্ব ও ভৌগলিক অখন্ডত্ব রক্ষায় সশস্ত্র বাহিনীর দেশপ্রেমিক সদস্যগণ অতন্দ্র প্রহরীর ভূমিকা পালন করে চলেছে। বিশ্বশান্তি রক্ষায়ও তারা পালন করে চলেছে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা। দেশের সকল প্রাকৃতিক দূর্যোগেও সশস্ত্র বাহিনী অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়িয়ে দ্বিধাহীনভাবে সংকট মোকাবেলায় ঝাঁপিয়ে পড়েছে।

 

সশস্ত্র বাহিনী দিবসের সকল কর্মসূচির সার্বিক সাফল্য কামনা করেন বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া।

Share this post

scroll to top
error: Content is protected !!