DMCA.com Protection Status
ADS

এবার রাষ্ট্রীয় মাস্তানীঃ ক্ষমা না চাইলে টিআইবির বিরুদ্ধে চরম ব্যবস্থা: সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত

ssg1ক্যাপ্টেন(অবঃ)মারুফ রাজুঃ আবার স্ব-মুর্তিতে অবতীর্ন হলেন আওয়ামী লীগ নেতা ও দুর্নীতির অভিযোগে পদত্যাগকারী রেল মন্ত্রী সুরন্জিত সেন গুপ্ত ।

জাতীয় সংসদ নিয়ে বির্তকিত এবং অবমাননাকর মন্তব্যের জন্য ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশকে-(টিআইবি) তিন দিনের মধ্যে ক্ষমা না চাইলে সাংবিধান অনুযায়ী চরম ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন আওয়ামীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য এবং সাবেক রেলমন্ত্রী কালো বিড়াল খ্যাত সুরঞ্জিত সেনগুপ্ত,এমপি ।

ssgমঙ্গলবার জাতীয় সংসদ ভবনের মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক প্রেস বিফ্রিং এ হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে ,  তিনি এই প্রতিষ্ঠানটির উদ্দেশ্যে বলেন, যে যার সীমানার মধ্যে কথা বলতে হবে। এনজিও কি আরেকটি বিকল্প সরকার নাকি ?

আইন, বিচার ও সংসদ বিষয়ক সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি বাবু সুরন্জিত আরো বলেন, আমি সংসদেও বলেছি, আজও বলছি- তিন দিন সময় দেওয়া হয়েছে, এরমধ্যে টিআইবি ভুল স্বীকার করে ক্ষমা না চাইলে তাদের বিরুদ্ধে অ্যাকশন নিতে সম্মত হবে কমিটি ।

তিনি বলেন, বৈদেশিক অনুদান (স্বেচ্ছাসেবামূলক কার্যক্রম) রেগুলেশন বিল-২০১৫ কমিটিতে রয়েছে , বিলও চূড়ান্ত হয়ে রয়েছে , এখন পাস হবে । তাই তিন দিন সময় দিচ্ছি  ড. ইফতেখারকে , এর মধ্যে তিনি যদি তার ভুল স্বীকার করে ক্ষমা না চান তাহলে এই আইনের ধারা সংযুক্ত করে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে ।

tibএছাড়া সরকার চাইলে তাদের বিরুদ্ধে বিদ্যমান আইনেই ব্যবস্থা নিতে পারবে। তিনি বলেন, আমাদের দেশে এক সময় এনজিওরা বিদেশ থেকে পয়সা এনে গরীবদের মাঝে ওষুধ বিতরণ করতো। এ এনজিও এখন ফুলে ফেঁপে এমন নমুনা ধরছে যেন আমার ঘরের ছাও আমারে খেতে চায়। এখন তারা সরকারের প্যারালাল হয়ে গেছে, দেশের প্যারালাল হয়ে গেছে।

সুরঞ্জিত বলেন, আমাদের অন্য যে কোনো এনজিওর বিরুদ্ধে কোন অভিযোগ নেই। কেবল মাত্র টিআইবির বিরুদ্ধে আমাদের এই অভিযোগ । টিআইবির ড. ইফতেখার সাম্প্রতিককালে কিছু কথা বলেছেন । যেটা গ্রহণযোগ্য না। দেশের সংসদকে এ ধরণের নিয়ে তামশা করা , মজা করা বিশ্বের কোথাও নেই ।

তিনি বলেন, গণতন্ত্র একদিনে হয়নি । বৃটিশ গণতন্ত্রও ৫শ` বছরের পুরানো । আমরাও চেষ্টা করছি । এর বিরুদ্ধে মতবিরোধ থাকতে পারে । যেমন নির্বাচন বিএনপি করতে পারে নাই । বিষয়টি বিএনপি-আওয়ামী লীগ বুঝবে । কিন্তু সংসদ আছে। এর বিষয়ে তারা কথা বলছে। সেটা রাজনৈতিক দলের বিষয় । কিন্তু তা নিয়ে এনজিও কোনো কথা বলতে পারে না । তাদের দেশসেবায় কোনো কাজ নেই। তারা যদি দেশসেবা করতে চায় এখানে এসে নিবন্ধিত হয়ে রাজনীতি করতে পারেন । দেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব, নিরাপত্তা নিয়ে অশালীন ভাষায় তারা কথা বলতে পারবেন না ।

তিনি বলেন , ইফতেখার সাহেব সংসদ নিয়ে তামাশা করেছেন। উনি কে? উনি এনজিও। বাহির থেকে টাকা আসে তাই সংসদ নিয়ে তার এই অশালীন কথা বার্তা । সংসদ ‘পুতুল নাচের নাট্যশালা’ এটা কোনো প্রাতিষ্ঠানিক, রাজনৈতিক, কূটনৈতিক ভাষা না , এটা একটা অশালীন ভাষা । সংসদ সংবিধানের অংশ ,কারন জনগণ এটা নির্বাচিত করে । তাই তিনি তার মন্তব্যের মাধ্যমে সীমা অতিক্রম করেছেন । তারা গবেষণা করবেন। কিন্তু কাউকে অপমান করার অধিকার তাদের কেউ দেয় নাই । 

সুরন্জিত সেন বলেন , আমাদের যে সংশোধনী আসছে তাতে কেউ কোনো যদি সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠান কিংবা সরকারের বিরুদ্ধে কোন সাংর্ঘষিক মন্তব্য করেন তবে সরকার চাইলে তাদের বিরুদ্ধে যে কোনো সময় কঠোর ব্যবস্থা নিতে পারবে ।

তিনি বলেন , তারা যদি রাজনীতি করতে চায় , রাজনৈতিক দলে যোগদান করুক । আমরাও তো জেলজুলুম খাটছি । এরপর এখানে আসছি । আপনারা গাছের টাও খাবেন, তলের টাও কুড়াবেন । দুইটাতো একসাথে চলবে না ।

তিনি বলেন , এখন অন্যান্য এনজিওদেরকে দায়িত্ব নিতে হবে । বলতে হবে ইফতেখার তাদের মুখপাত্র কি না ? তারা যদি বলে সে আমাদের মুখপাত্র না । তাহলে তাদেরটা আমরা একভাবে দেখবো ।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি এক সংবাদ সম্মেলনে সার্বিক বিবেচনায় জাতীয় সংসদকে ‘পুতুল নাচের নাট্যশালা’ ও সংসদে প্রধান বিরোধীদল জাতীয় পার্টিকে  ‘কথিত বিরোধী দল’ বলে মন্তব্য করে এই সরকারের ব্যাপক রোষানলে পড়ে  ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ- টিআইবি ।

Share this post

scroll to top
error: Content is protected !!