DMCA.com Protection Status
ADS

সাদ্দামের ইরাক এবং হাসিনার বাংলাদেশ

sharmysaddamক্যাপ্টেন(অবঃ)মারুফ রাজুঃ  ইরাকের মহাপরাক্রমশালী শাসক সাদ্দাম হোসেনের কথা মনে পড়ে??? কি এক অদৃ্শ্য যাদু বলে ইরাক শাসন করে গেছেন তিনি ৩০ বছরেরও বেশী সময় ধরে। আমরা কি জানি সাদ্দাম হোসেন ছিলেন ইরাকের সংখ্যা লঘু সুন্নী সম্প্রদায়ের লোক? মাত্র এক চতুর্থাংশ জনগনের প্রতিনিধি হয়েও তিনি কিভাবে এতো দির্ঘকাল ইরাকের তিন চতুর্থাংশ (শিয়া এবং কুর্দী) জনগনকে শাসন করেছিলেন ???

কারন তিনি ইরাকের স্বশস্ত্র বাহিনী ,নিরাপত্তা বাহিনী,বেসামরিক প্রশাসন যন্ত্র থেকে শুরু করে সরকারের প্রতিটি অংশে নিয়োগ করেছিলেন সংখ্যা লঘু নিজ সুন্নী সম্প্রদায়ের লোক। আর রাষ্ট্রীয় ক্ষমতার নিউক্লিয়াসে রেখেছিলেন তার জন্মস্থান তিকরিত অঞ্চলের লোকজনদের,সাদ্দামের প্রতি যাদের আনুগত্য ভালোবাসা ছিলো প্রশ্নাতিত।

দেশের আইন কানুন সবই আবর্তিত হতো তার হুকুমে,ইরাকে বিরোধী দল ও মত বলতে তেমন কিছুই ছিলোনা আর বহির্বিশ্ব বিশেষ করে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের পরিপূর্ন সহযোগিতা ও সমর্থন পেয়েছেন দির্ঘদিন (প্রতিবেশী ইরানকে শায়েস্তা করার লক্ষ্যে)।

যার ফলে দেশের সিংহভাগ মানুষের ইচ্ছার বিরুদ্ধে ক্ষমতায় সফল ভাবে থাকতে পেরেছেন এতো দীর্ঘ কাল। ৯০ এ অতি লোভে কুয়েত আক্রমন না করলে হয়তো আজও বহাল তবিয়তে ইরাকের প্রেসিডেন্ট হিসাবেই থাকতেন সাদ্দাম হোসেন।

এবার আসি বাংলাদেশ প্রসঙ্গে।কি এক অদৃ্শ্য যাদুবলে সাদ্দামের নীতি অনুসরন করে নিজ দল এবং দেশের সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের লোকজনের উপর নির্ভর দেশের শাসনভার আকড়ে রয়েছেন শেখ হাসিনা। ক্ষমতার নিউক্লিয়াসে রেখেছেন শেখ হাসিনার জন্মস্থান গোপালগন্জের লোকজনদের ,যারা সাধারন মানুষের কাছে গোপালী হিসাবে পরিচিত।

প্রশাসন এবং নিরাপত্তা বাহিনীর অর্ধেকের বেশী উচ্চ পদে বসানো হয়েছে দলীয় ক্যাডার এবং সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের (জনসংখ্যার ১০ ভাগেরও কম ) প্রতিনিধিদের। দেশের বিচার বিভাগ সহ সরকারের প্রতিটি অংশে বসানো হয়েছে বিশ্বস্থ লোকদের।

দেশের সিংহভাগ জনগন যতো অখুশী হোক না কেনো,শেখ হাসিনা স্বেচ্ছায় নিরপেক্ষ নির্বাচনও দেবেন না এবং ক্ষমতা জনগনের পছন্দের দলকেও নিতে দেবেন না।

আর এক্ষেত্রে বৃহৎ প্রতিবেশী দেশ ভারতের প্রচ্ছন্ন সমর্থন আওয়ামী লীগ সরকারকে করে তুলেছে দুর্দমনীয়। তারা ভাবছেন পরিবর্তিত বিশ্ব পরিস্থিতিতে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ,ইউরোপ কিংবা জাতিসংঘ কেউই বাংলাদেশে ইরাকের মতো সহজে সামরিক হামলাও করবে না আর সাদ্দামের মতো হাসিনার পতনও তরান্বিত হবে না।

আর সাদ্দাম ফরমূলা ব্যবহার করেই কি শেখ হাসিনার আওয়ামী লীগ আরও ২০-৫০ বছর শাসন ক্ষমতায় থাকতে চায় বাংলাদেশে???

তাহলে এ অসহনীয় পরিস্থিতি থেকে আশু উত্তরনের উপায় কি হতে পারে, আমরা ভাবছি কি???

""নাকি ইরাকের একনায়ক সাদ্দাম হোসেনের মতো ঐতিহাসিক করুন ও মর্মান্তিক পরিনতির দিকে এগিয়ে চলেছেন শেখ হাসিনা""????

লেখকঃ সাবেক সেনা কর্মকর্তা এবং সামরিক ও নিরাপত্তা বিশ্লেষক

Share this post

scroll to top
error: Content is protected !!