DMCA.com Protection Status
ADS

ধর্মের কল বাতাসে নড়েঃ এবার হাছান মাহমুদকে বেয়াদব বললেন সাজেদা চৌধুরী

1411917399আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক, সাবেক বন ও পরিবেশমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদের ওপর ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে ‘বেয়াদব’ বলে অভিহিত করেছেন দলের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ও সংসদ উপনেতা সৈয়দা সাজেদা চৌধুরী। 




রবিবার ধানমণ্ডি ৩২-এ বঙ্গবন্ধু ভবনের সামনে আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের অনুষ্ঠানে সাজেদা চৌধুরীর বক্তব্যের সময় পাশে পাল্টা সভায় হাছান মাহমুদ বক্তব্য রাখায় ক্ষোভ প্রকাশ করে তিনি এই মন্তব্য করেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ৬৮তম জন্মদিন উপলক্ষে স্বেচ্ছাসেবক লীগ ও মোটরচালক লীগ পৃথক আলোচনা সভার আয়োজন করে।




বক্তব্যের শুরুতে অন্য সভার বক্তব্য শুনে বিব্রত ও ক্ষিপ্ত হন সাজেদা চৌধুরী। এ সময় তিনি নেতাকর্মীদের উদ্দেশে বলেন, আমি আপনাদের চ্যালেঞ্জ দিয়ে বলছি, এই ধানমণ্ডি ৩২ নম্বরে অতীতে কোনো পাল্টাপাল্টি সমাবেশ দেখিনি, দেখবও না। এ সময় পাশে দাঁড়ানো স্বেচ্ছাসেবক লীগের এক নেতা অন্য অনুষ্ঠানের বক্তা হিসেবে হাছান মাহমুদ বক্তৃতা করছেন জানালে সাজেদা চৌধুরী বলেন, উনি কে? কবে এসেছেন? কী ছিলেন? এখন আমার সঙ্গে পাল্টাপাল্টি বক্তব্য দিতে চান। আমি সব ইতিহাস জানি। কীভাবে উনি নেতা হয়েছেন তার ইতিহাস আমার জানা আছে। নতুন নতুন নেতা হয়েছেন।




সাজেদা চৌধুরী বলেন, হাছান মাহমুদ আপনি এটকু সংবরণ করুন, আমি শেষ করছি। এই বেয়াদবি আমি কখনও সহ্য করব না। আজ যারা গলা লম্বা করে বক্তব্য দিচ্ছে মুক্তিযুদ্ধের সময় বয়স কত ছিল? এ সময় পাশে দাঁড়িয়ে থাকা সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক পংকজ দেবনাথ বক্তব্য বন্ধ হয়েছে জানালে তিনি বলেন, এটা আওয়ামী লীগের কখনও ছিল না। পাল্টাপাল্টি বক্তব্য এটা জামায়াতি হিসাব। এই ধরনের আস্ফাালন রাজনৈতিক জীবনে দেখেননি উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, এখন নতুন নতুন নেতা হয়ে বেয়াদবি শুরু করেছে। সাজেদা চৌধুরীর বক্তব্য শেষে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে কেক কাটা হয়।




পরে স্বেচ্ছাসেবক লীগের অনুষ্ঠান শেষ হলে হাছান মাহমুদ আবারও বক্তব্য দেন। অনুষ্ঠান শেষে সাজেদা চৌধুরীর বক্তব্যের বিষয়ে হাছান মাহমুদের সঙ্গে গণমাধ্যমকর্মীরা কথা বলতে চাইলে তিনি কোনো কথা না বলে বেরিয়ে যান।




একই অনুষ্ঠানে আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার বক্তব্যের সমালোচনা করে বলেন, খালেদা জিয়া কাফফারা দেয়ার কথা বলেছেন। কীসের কাফফারার কথা বলছেন তিনি। তার এ কথার মধ্যে ষড়যন্ত্র লুকিয়ে আছে।

খালেদা জিয়া সরকার উত্খাতের ষড়যন্ত্র করছেন উল্লেখ করে তিনি বলেন, দেশের মানুষের ভাগ্য নিয়ে ছিনিমিনি খেলার ষড়যন্ত্র হচ্ছে। শেখ হাসিনাকে হত্যার ষড়যন্ত্র করা হচ্ছে। শেখ হাসিনাকে হত্যার মধ্য দিয়ে সরকার উত্খাতের ষড়যন্ত্র হচ্ছে। কিন্তু খালেদা জিয়ার ষড়যন্ত্র সফল হবে না। সভায় সভাপতিত্ব করেন স্বেচ্ছাসেবক লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ।


 

Share this post

scroll to top
error: Content is protected !!