DMCA.com Protection Status
ADS

বাংলাদেশে এখন আর গনতন্ত্র বা মানবাধিকার কোনোটাই নেইঃ কানাডা বিএনপি

 

 

 

দৈনিক প্রথম বাংলাদেশ প্রতিবেদনঃ  স্মরনকালের ভয়াবহ পাহাড় ধসে ক্ষতিগ্রস্তদের ত্রাণ দিতে যাওয়ার পথে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নেতৃত্বাধীন বিএনপির গাড়ী বহরের ওপর আওয়ামী লীগের হামলা এবং ভাংচুরের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে কানাডা বিএনপি।

এ ন্যাক্কারজনক ঘটনার জন্য অবৈধ উপায়ে ক্ষমতাসীন হাসিনা সরকারকে দায়ী করে অবিলম্বে জড়িতদের দৃষ্টান্তমুলক শাস্তির দাবিও জানিয়েছে কানাডা বিএনপি।

রোববার গণমাধ্যমে পাঠানো  বিবৃতিতে এই নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান কানাডা বিএনপির নেতৃবৃন্দ।

পাহাড় ধসে রাঙামাটির বিধ্বস্ত জনপদ ও মাটিচাপায় হতাহতদের পাশে দাঁড়াতে রোববার মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের নেতৃত্বে বিএনপির কেন্দ্রীয় টিম রাঙামাটি যাওয়ার পথে রাঙ্গুনিয়ায় ইসাখালী নামক স্থানে গাড়িবহরের ওপর বর্বরোচিত হামলা চালানো হয়।

হামলায় বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, তার সফরসঙ্গী বিএনপি জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য মেজর জেনারেল (অব.) রুহুল আলম চৌধুরী, বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক (চট্টগ্রাম বিভাগ) মাহবুবের রহমান শামীম, স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. মীর ফাওয়াজ হোসেন শুভ, চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আবুল হাশেম বকরসহ প্রায় ১৫ জন আহত হয়েছেন বলে দলের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।

কানাডা বিএনপির নেতারা বলেন, ‘মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর ঐদিন পাহাড়ি এলাকায় যাবেন তা জেনেও সরকার ও প্রশাসন যথাযথ নিরাপত্তা ব্যবস্থা না করে অসুস্থ ও প্রতিহিংসার নগ্ন পরিচয়কে উন্মোচিত করেছে। সরকার তার ব্যর্থতা আড়াল করতে ঘটনাকে ভিন্ন খাতে প্রবাহিত করার কোনোরকম  অপকৌশল গ্রহণ করছে যা নিদারুন দুঃখজনক।

বিশেষ করে রাঙ্গুনিয়ার অনির্বাচিত আওয়ামী সাংসদ ও সাবেক মন্ত্রী হাছান মাহমুদ এই হামলায় সরাসরি জড়িত বলে যে অভিযোগ উঠেছে তার সুষ্ঠু তদন্ত করা অত্যাবশ্যক হয়ে পড়েছে।

কানাডা বিএনপির নেতারা এই বিবৃতিতে আরও বলেন,অনির্বাচিত ও অবৈধ হাসিনা সরকারের আমলে দেশে আজ গনতন্ত্র,মানবাধিকার এবং জননিরাপত্তার লেশমাত্র আর নেই।এই অসহনীয় অবস্থার উত্তরনে অবিলম্বে দলনিরপেক্ষ সহায়ক সরকারের অধিনে জাতীয় নির্বাচন চান দেশের সিংহভাগ জনগন।

তারা বলেন, ‘আমরা মনে করি, তাদের ওপর এই হামলা গণতন্ত্রের ওপর হামলা। এই হামলা প্রমাণ করে, দেশে আইনের শাসন বলে কিছু নেই। দেশে চলছে একদলীয় বাকশালী শাসন।’ ‘বিএনপির মহাসচিবসহ শীর্ষ নেতাদের ওপর নগ্ন হামলা প্রমাণ করে এই সরকারের জনভিত্তি নেই। দেউলিয়াত্ব সরকার জনগণের আস্থা অর্জনে ব্যর্থ হয়ে হামলা-মামলা, গুম-খুনের পথ বেছে নিয়েছে।’

 

বিবৃতিটিতে সাক্ষর করেছেন,কানাডা বিএনপি নেতা সর্ব জনাব মকসুম তরফদার  , এম জয়নাল আবেদীন জামিল , নূরনবী রশিদ  ,মোঃ নাসিরউল্লাহ ,  ,আনসার উদ্দীন আহমেদ , এজাজ আকতার তৌফিক , ক্যাপ্টেন(অবঃ)মারুফুর রহমান রাজু , আবুল বাসার মানিক, মোঃ মোস্তাহিদ আহমেদ (মুকু)  , কামরুল হাসান ফারুক হাওলাদার ,সাফিউদ্দীন আহমেদ ,নবী হোসেন ,আকবর বাসার, রফিকুল ইসলাম,মাহমুদুল ইসলাম সুমন, মেহেদী ফারুক,জুবের আহমেদ,রফিকুল ইসলাম ,মোঃ রীপন ,কামরুল খান,মোঃ আবুল হাসান,মোঃ মাহবুব , প্রমূখ।

Share this post

scroll to top
error: Content is protected !!