DMCA.com Protection Status
ADS

গাজীপুরে একদিনে ১০ খুন, এলাকায় চরম আতঙ্ক

P1_kjaligonjগাজীপুরে একই দিনে পৃথক ঘটনায় দু’ছেলে ও বাবাসহ ১০ জন খুন হয়েছে। একই দিন এতগুলো খুনের ঘটনা নিয়ে জেলায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে। স্থানীয়দের মাঝে আতঙ্ক দেখা দিয়েছে।
জানা গেছে, গাজীপুর জেলার কালীগঞ্জ উপজেলার মোক্তারপুর ইউনিয়নের ডেমরা গ্রামে জমি নিয়ে বিরোধের জের ধরে দু’পক্ষের সংঘর্ষকালে প্রতিপক্ষের হামলায় এক বৃদ্ধ ও তার দু’ছেলে খুন হয়েছে। এ ঘটনায় উভয়পক্ষের অন্তত ৬ জন আহত হয়েছে। নিহতরা হলেন ওই উপজেলার ধনপুর গ্রামের মোন্তাজ উদ্দিন (৯০) ও তার দু’ছেলে সাইফুল ইসলাম (৩৮) এবং সাইজুল ইসলাম (৩৩)। এ ঘটনায় একজনকে আটক করেছে পুলিশ। 
কালীগঞ্জ থানার এসআই রাজীব চক্রবর্তী ও প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, কালীগঞ্জ উপজেলার মোক্তারপুর ইউনিয়নের ডেমরা গ্রামের ৩৫ শতক জমি নিয়ে বেশ কিছুদিন ধরে স্থানীয় আলাউদ্দিন গংয়ের সঙ্গে ধনপুর গ্রামের মোন্তাজ উদ্দিন গংয়ের বিরোধ চলে আসছিল। গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে উভয়পক্ষের লোকজন ডেমরা গ্রামের ওই বিবদমান জমিতে কাজ করতে গেলে দু’পক্ষের মাঝে কথা কাটাকাটি হয়। একপর্যায়ে আলাল গংয়ের লোকজন দা, লাঠি ও ছোরা নিয়ে প্রতিপক্ষের লোকদের ওপর হামলা চালালে উভয়পক্ষের মাঝে সংঘর্ষ বাধে। এতে প্রতিপক্ষের দায়ের এলোপাতাড়ি কোপে ঘটনাস্থলেই সাইজুল ইসলাম নিহত হয় এবং ৮ জন আহত হয়। আহতদের স্থানীয় কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেয়ার পর চিকিত্সাধীন অবস্থায় মোন্তাজ উদ্দিন ও তার দু’ছেলে সাইফুল ইসলাম মারা যান। এ ঘটনায় আহত নূরুল ইসলাম (৫০), কোহিনূর বেগম (৪০) অপরপক্ষের আনোয়ার হোসেনসহ (৩৫) ৬ জনকে বিভিন্ন হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।
কালীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাজমুল ইসলাম ভূঁইয়া জানান, ওই গ্রামের আলাল উদ্দিন ও মমতাজ উদ্দিনের সাথে ৩৫ শতক জমি নিয়ে গত চার বছর ধরে বিরোধ চলে আসছে। সংঘর্ষের ঘটনায় আলাল উদ্দিনকে (৪৫) আটক করা হয়েছে।
অপর দিকে পুলিশ ও এলাকাবাসী জানায়, শ্রীপুর উপজেলার বরমী নতুন বাসস্ট্যান্ডের কাছে একটি পরিত্যক্ত ছাপড়া ঘরের ভেতর থেকে গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে জবাই করা এক শিশুর লাশ উদ্ধার করেছে শ্রীপুর মডেল থানা পুলিশ। নিহতের নাম মেহেদী হাসান (১১)। সে বরমী বাজার এলাকার রফিকুল ইসলামের ছেলে এবং স্থানীয় আল মদিনা কিন্ডারগার্টেনের পঞ্চম শ্রেণীর ছাত্র। সায়েম গত বুধবার সন্ধ্যা ৭টার দিকে তার বাড়ি থেকে নিখোঁজ হয়। স্বজনরা রাতভর সম্ভাব্য সকবস্থানে খোঁজাখুঁজি করে তাকে পায়নি। পরদিন এলাকাবাসী তার লাশ দেখতে পেয়ে পুলিশে খবর দেয়। নিহতের বাবা রফিকুল ইসলাম জানান, পারিবারিক বিরোধকে কেন্দ্র করে প্রতিপক্ষ সায়েমকে গলা কেটে হত্যা করেছে। 
এদিকে একই উপজেলার প্রহলাদপুর ইউনিয়নের কদমা গ্রামে স্বামীকে মাদক ব্যবসায় বাধা দেয়ায় গতকাল বৃহস্পতিবার ভোররাতে নিজ স্ত্রীকে পিটিয়ে হত্যা করেছে ওই মাদক ব্যবসায়ী। এ ঘটনায় পুলিশ ঘাতক স্বামী খোরশেদ আলমকে আটক করেছে। নিহতের নাম মাকসুদা আক্তার ইভা (২০)।
শ্রীপুর মডেল থানার এসআই আব্দুল মালেক জানান, প্রায় ৫ বছর আগে পার্শ্ববর্তী কালীগঞ্জ উপজেলার ফুলদিয়া গ্রামের আমিন উদ্দিনের মেয়ে ইভার সঙ্গে শ্রীপুর উপজেলার কদমা গ্রামের মৃত মোহাম্মদ আলী দর্জির ছেলে খোরশেদ আলমের বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে মাদক ব্যবসাকে কেন্দ্র করে স্বামী ও স্ত্রীর মাঝে বিরোধ চলছিল। এর জের ধরেই এ ঘটনা ঘটে। নিহতের থুতনির নিচে ও ঘাড়ের ডান পাশে কাটা দাগ এবং ডান কান ও ডান হাতে জখমের চিহ্ন রয়েছে।
অপর ঘটনায় শ্রীপুরের পাঁচুলটিয়া গজারী বন থেকে অজ্ঞাত এক মহিলার (২৫) অর্ধগলিত লাশ গত বুধবার রাতে উদ্ধার করেছে পুলিশ। তার শরীর পাতা দিয়ে ঢাকা ছিল।
শ্রীপুর মডেল থানার ওসি আমির হোসেন জানান, দুর্বৃত্তরা অন্তত তিন দিন আগে ওই মহিলাকে হত্যার পর লাশটি পাতা দিয়ে ঢেকে গজারী বনের ভেতর ফেলে গেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। লাশের গলায় কাপড় পেঁচানো ছিল। 
এদিকে গাজীপুর সদর উপজেলার দেশীপাড়া এলাকার মো. ইয়ার উদ্দিনের প্রথম স্ত্রী আলেমুন নেছার (৬২) লাশ গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে বাড়ির পাশের জমি থেকে পুলিশ উদ্ধার করেছে। নিহতের বাম চোখে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। নিহত আলেমুন নেছা নিঃসন্তান ছিলেন। রাতে তিনি বাড়ি থেকে নিখোঁজ হন। এ ব্যাপারে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পুলিশ ইয়ার উদ্দিনের দ্বিতীয় স্ত্রীর দু’সন্তান রানা (২৬) ও সজীবকে (২০) আটক করেছে। পুলিশ লাশ উদ্ধার করে গাজীপুর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠিয়েছে।
একই উপজেলার টেক কাথোরা এলাকার আশরাফুল মণ্ডলের বাড়ির ভাড়াটিয়া নাজমুল হোসেন সেলিম (৪৫) গত বুধবার গভীর রাতে প্রতিবেশী এক নারী পোশাক কর্মীর সঙ্গে গল্প করছিলেন। এ অপরাধে বাড়ির মালিক ও তার লোকজনের বেধড়ক পিটুনিতে ঘটনাস্থলেই সেলিম নিহত হন। স্থানীয় এক গার্মেন্টের কর্মকর্তা সেলিমের বাড়ি শরীয়তপুরের জাজিরায়। 
এছাড়াও ওই উপজেলার খাইলকৈর এলাকার রাসেলের স্ত্রী সাথীকে (২২) তিন দিন আগে গলায় ফাঁস লাগানো ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়। তাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে ঢাকার এক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানে চিকিত্নাধীন অবস্থায় গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে সে মারা যায়। নিহতের পরিবারের দাবি, তাকে খুন করা হয়েছে। বিকালে পুলিশ গাজীপুর সদর হাসপাতাল মর্গে সুরতহাল করেছে। 
অপর দিকে কালিয়াকৈর উপজেলার ডাইনকিনীতে একটি কাঁঠাল গাছ থেকে এক মহিলার ঝুলন্ত লাশ গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে পুলিশ উদ্ধার করেছে। তার নাম খালেদা আক্তার (২৮)। সে কুড়িগ্রাম জেলার উলিপুরের কুড়ারপাড়া এলাকার মুকুল মিয়ার স্ত্রী। তারা কালিয়াকৈরের ডাইনকিনীতে আব্দুর রহমানের কলোনিতে ভাড়া থাকত। লাশগুলো গতকাল বৃহস্পতিবার ময়না তদন্তের জন্য গাজীপুর সদর হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

 

 

 

Share this post

scroll to top
error: Content is protected !!