DMCA.com Protection Status
ADS

পোশাক কারখানার নিরাপত্তায় উঠে এলো তিন চ্যালেঞ্জ

image_79061_0পোশাক কারখানার নিরাপত্তার জন্য তিনটি চ্যালেঞ্জ উঠে এসেছে অগ্নি ও ভবন নিরাপত্তা সরঞ্জামাদি প্রদর্শনী মেলা থেকে। এগুলো হল- অদক্ষ ব্যবস্থাপনা ও পর্যেবক্ষক, অদক্ষ শ্রমিক এবং  ব্যবস্থাপকদের নেতিবাচক দৃষ্টিভঙ্গি।

দুদিনব্যাপী মেলায় আগত ৪৬৭ জন দর্শনার্থীর ওপর চালানো এক জরিপে এ তথ্য পাওয়া গেছে বলে জানিয়েছে অ্যালায়েন্স। এর মধ্যে কারখানা প্রতিনিধি ছিলেন ৬৪ শতাংশ, ব্র্যান্ড ১৮ দশমিক ১ শতাংশ, পরামর্শক ৪ দশমিক ৭ শতাংশ এবং এনজিও ২ দশমিক ৮ শতাংশ।



সোমবার সন্ধ্যায় হোটেল সোনাগাঁওয়ে ভবন ও অগ্নি নিরাপত্তা সামগ্রী প্রদর্শনী শেষে মেলার ওপর তৈরি এ জরিপ উপস্থাপন করা হয়।

জরিপে, এই চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় তিন ধরণের সংশোধন কৌশল অনুসরণের পরামর্শও উঠে আসে।  



জরিপের ফল অনুযায়ী, কারখানার মান উন্নয়নে ব্যবহৃত মানদণ্ডে ৪২ দশমিক ২ শতাংশ মনে করেন এটা বাস্তবায়ন কঠিন হবে। আর ৩৫ দশমিক ৫ শতাংশ মনে করেন এটা এখনই বাস্তবায়ন করা উচিত। এছাড়া ১১ শতাংশ মনে করেন এটা বাস্তবায়ন করা খুবই কঠিন ব্যাপার হবে।

তবে প্রত্যাশা করা হচ্ছে এই প্রদর্শনী তৈরি পোশাক খাতের নিরাপত্তা বাড়াতে অবদান রাখবে।



জরিপে উঠে এসেছে, এবারে প্রদর্শনী নিয়ে ৭৭ শতাংশ দর্শনার্থী মনে করেন মেলা সফল হয়েছে।

প্রদর্শনীতে দেশের ৮০০টি কারখানা ও ৪০টি ইঞ্জিনিারিং, টেকনোলজি এবং ম্যাটিরিয়াল কোম্পানির প্রতিনিধিত্বকারী দুই হাজার ৬শ জন দর্শনার্থী অংশগ্রহণ করেন। যেখানে কারখানার মান উন্নয়ন বিষয়ে একটি ফোরাম গঠন করা হয়েছে। কারখানার নিরাপত্তাকে আরো জোরদার করার লক্ষ্যে বাংলাদেশ, ভারত চিন, যুক্তরাষ্ট্র এবং ইউরোপ থেকে আগত প্রদর্শনকারীরা তাদের সর্বশেষ প্রযুক্তি প্রদর্শন করেছেন।



এদিকে, বিক্রতারা অগত দর্শনার্থীদর নিরাপত্তা সামগ্রী প্রদর্শন করতে পেরে বেশ সন্তোষ প্রকাশ করেন।

প্রদর্শনী শেষে অ্যাকর্ড, অ্যালায়েন্স ও বিজিএমইএ সম্মিলিতভাবে সংবাদ সম্মেলন করেন। এতে উপস্থিত ছিলেন- বিজিএমইএ সভাপতি আতিকুল ইসলাম, অ্যালায়েন্সের মেজবাহ রবিন, অ্যাকোর্ডের রব ওয়েজসহ অন্যরা।

Share this post

scroll to top
error: Content is protected !!